শিক্ষকের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা!

|

রাজধানীতে রহস্যজনক নিখোঁজের ৩ দিন পর বুড়িগঙ্গা নদী থেকে এক স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম শামসুল আলম সিয়াম, সে রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুল ও কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র। সহপাঠীদের অভিযোগ, স্কুলে গণিত শিক্ষকের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যাও করতে পারে সিয়াম।

বিকেলে মিরপুরের আনসার ক্যাম্পের কাছে সরকারি কর্মকর্তাদের আবাসিক এলাকায় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে অংশ নিতে আসা সিয়ামের সহপাঠিরা জানান, ক্লাস পরীক্ষায় দু’একটি বিষয়ে ফলাফল খারাপসহ নানা বিষয় নিয়ে মানসিক যন্ত্রনায় ভুগছিলো সিয়াম।

গণিত শিক্ষক হিসাব আলী এ বিষয়ে সিয়ামের পিতামাতাকে স্কুলে হাজির হয়ে লিখিত দেয়ার জন্য বেশ কিছুদিন ধরে চাপ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু বাবা মা অসুস্থ থাকায় বিষয়টি তাদের জানাতে চায়নি সিয়াম। পরবর্তীতে শিক্ষকের সরাসরি ফোন পেয়ে গত ২৬ সেপ্টেম্বর স্কুলে যাওয়া কথা ছিলো সিয়োমের বাবার। ঐদিন প্রি-টেস্ট দেয়ার জন্য মিরপুরের আনসার ক্যাম্পের স্টাফ কোয়ার্টারের বাসা থেকে স্কুলে যাওয়ার পর থেকে নিখোঁজ ছিলো সিয়াম। বাসায় না ফিরলে পরদিন থানায় সাধারণ ডায়েরি করে পরিবার। সকালে পোস্তগোলার কাছে বুড়িগঙ্গা থেকে সিয়ামের লাশ উদ্ধার করা হয়।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply