ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলায় নিহত ৫৫

|

ইয়েমেনের বন্দর নগরী হুদাইদাতে সৌদি জোটের বিমান হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে অন্তত ৫৫ জনে। আহত হয়েছেন আরও ১২৪ জন। হতাহতদের উদ্ধারে এখনও চলছে অভিযান।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি অর্ধশতাধিক মানুষের চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় ওষুধ পাঠাচ্ছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা- রেড ক্রস।

হুতি সরকারের গণস্বাস্থ্য বিষয়ক মন্ত্রী তাহা আল-মুতাওয়াকিল জানান, এ ঘটনার পর আরও হামলার শঙ্কায় আহতদের অনেককেই উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজধানী সানায় পাঠানো সম্ভব হচ্ছে না। একে ‘গণহত্যা’ আখ্যা দিয়ে, পরিস্থিতির জন্য সৌদি মিত্র যুক্তরাষ্ট্র দায় এড়াতে পারে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

হুদাইদার প্রধান সরকারি হাসপাতাল এবং একটি ব্যস্ত জেটি লক্ষ্য করে, বৃহস্পতিবার এসব হামলা হয়।

এদিকে, তীব্র সহিংসতার মুখে হুদাইদায় প্রতিদিন আশ্রয়হীন হচ্ছে তিন হাজার শিশু, জানিয়েছে জাতিসংঘ। হামলার পর অঞ্চলটিতে কলেরা মহামারীর শঙ্কা আরও বেড়ে গেছে বলে সতর্কতা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উপ-মহাপরিচালক ড. পিটার সালামা বলেন, “ইয়েমেনের উত্তরাঞ্চলে বিশুদ্ধ পানির সংকটে বিভিন্ন ব্যাধি ছড়িয়ে পড়ছে। সংগৃহীত তথ্য বলছে, বড় ধরনের কলেরা মহামারীর ঝুঁকিতে আছে দেশটি। আল-থাওরা হাসপাতালে হামলার পর এ ঝুঁকি আরও বেড়েছে। কারণ হাসপাতালটি কলেরার চিকিৎসার জন্য সুখ্যাত ছিল। এ অবস্থায় রোগটির প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ৪, ৫ ও ৬ আগস্ট অঞ্চলটিতে বিনামূল্যে জরুরি প্রতিষেধক বিতরণের কর্মসূচি নিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।”

যমুনা অনলাইন: আরএম









Leave a reply