কক্সবাজার সৈকতে বান্ধবীকে বাঁচাতে গিয়ে বন্ধু নিখোঁজ

|

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বান্ধবীকে বাঁচাতে গিয়ে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব) বিশ্ববিদ্যালয়ের রাফসান ফয়সাল নামের এক ছাত্র নিখোঁজ হয়েছে। বুধবার (১ আগষ্ট) রাত আটটার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সি গার্ল পয়েন্টে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত রাফসান ফয়সাল রাজধানী ঢাকার ধানমন্ডির ইউল্যাব ইউনিভার্সিটির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র। রাফসানকে উদ্ধারে দমকল বাহিনী, ট্যুরিস্ট পুলিশ ও বিচ কর্মী সমুদ্র সৈকতে অভিযান চালাচ্ছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বিচ কর্মী মাহাবুবুর রহমান জানিয়েছেন, রাত আটটার কিছু পরে দুই পর্যটকের চিৎকার শোনে তারা সি গার্ল পয়েন্টে ছুটে যান। এই সময় তারা জানতে পারেন পানিতে ভেসে যাওয়া বান্ধবী তৈয়বা তাবাচ্ছুমকে উদ্ধার করে আনার সময় রাফসান নামের তাদের বন্ধু স্রোতের টানে ভেসে যায়।

ট্যুরিস্ট পুলিশের কক্সবাজার অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার ফজলে রাব্বী জানান, নিখোঁজ মো. রাফসান ফয়সাল (২১) ঢাকার ইউল্যাব ইউনিভার্সিটির গণযোগাযোগ সাংবাদিকতা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

নিখোঁজ ফয়সালের সঙ্গে বেড়াতে আসা বন্ধুদের বরাত দিয়ে ফজলে রাব্বী বলেন, মঙ্গলবার রাতে ঢাকা থেকে মো. রাফসান ফয়সাল, মো. সামিউল হাসান সায়েদ ও তায়েবা তাবাচ্ছুম সহ তিন বন্ধু মিলে কক্সবাজার বেড়াতে রওনা দেন। তারা তিনজনই সহপাঠী। বুধবার সকালে কক্সবাজার পৌঁছে কলাতলী এলাকার আবাসিক হোটেল জিনিয়াতে অবস্থান করেন।

“বিকালে বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ঘুরাঘুরি শেষে সন্ধ্যার পর সমুদ্র সৈকতে যান। সেখানে তিন বন্ধু বিচ বাইকে চড়ে ২/৩ ঘন্টা সময় কাটান। এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ৮ টার দিকে তারা সৈকতে গোসল করতে নামে। এ সময় পানিতে ভেসে যাওয়া বান্ধবি তাবাচ্ছুমকে উদ্ধার করতে গিয়ে রাফসান ফয়সাল নিখোঁজের ঘটনা ঘটে।”

তিনি আরও বলেন, “পর্যটক তিন বন্ধু মিলে গোসলের সময় সাগরে ভাটা চলছিল। ভাটার সময় সাগরে গোসল করতে নামা বিপদজনক। নিষেধাজ্ঞা না মেনেই তিন জন গোসল করতে নামে”।

রাফসানের বন্ধু মো. সামিউল হাসান সাঈদ বলেন, স্রোতের টানে তাবাচ্ছুম তলিয়ে যাওয়ার সময় চিৎকার দিলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের উদ্ধারে নেমে পড়ি। এক পর্যায়ে রাফসানের সহায়তায় তাবাচ্ছুমকে টেনে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও রাফসান নিজেই ঢেউয়ের তোড়ে তলিয়ে যায়।

ট্যুরিষ্ট পুলিশের কর্মকর্তা ফজলে রাব্বী বলেন, ঘটনার পর নিখোঁজের উদ্ধারে কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা অভিযান চালাচ্ছে। এছাড়া সৈকতে দায়িত্ব পালনকারি ট্যুরিস্ট পুলিশ উদ্ধার কর্মীরাও সাগরের বিভিন্ন পয়েন্টে তল্লাশি চালাচ্ছে।

যমুনা অনলাইন: আরএম/ইএম









Leave a reply