বিপিএল: ৪ পুরনো ক্রিকেটার রাখতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো

|

আগামী ৫ জানুয়ারি শুরু হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলের ৬ষ্ঠ আসর। এ আসরে প্লেয়ার্স ড্রাফটের নিয়মে বেশ কিছু পরিবর্তন আসছে। পুরনো দল থেকে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে সর্বোচ্চ চার ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো।

আর স্কোয়াডের আকার ঠিক রাখতে বেঁধে দেয়া হচ্ছে দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারের কোটা। সর্বোচ্চ তিন জন করে বিদেশি ক্রিকেটার সরাসরি নিতে পারবে দলগুলো। এ সংক্রান্ত সব সুপারিশ বোর্ড সভায় তোলার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

রোববার বিপিএল ফ্রাঞ্চাইজি মালিকদের সঙ্গে বৈঠকে এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছায় বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল। বোর্ডের সিদ্ধান্ত ছিল আগের আসরের চার ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে প্রতিটি দল। যেখানে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে চার জন অথবা চাইলে কোনো দল চারজনই স্থানীয় বা চারজনই বিদেশি বেছে নিতে পারে। যদিও ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর চাওয়া সংখ্যাটা নির্ধারণ করে দেওয়া হোক।

এ বিষয়ে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য জালাল ইউনুস বলেন, ফ্রাঞ্চাইজিগুলো পুরনো দল থেকে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে সর্বোচ্চ চার ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে। যেখানে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে চার জন অথবা চাইলে কোনো দল চারজনই স্থানীয় বা চারজনই বিদেশি বেছে নিতে পারবে। এটা তাদের ব্যাপার।

জানা গেছে, এবার ড্রাফটে কতজন দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার নিতে পারবে দলগুলো তারও একটা সীমারেখা করতে চায় বিসিবি। সর্বোচ্চ ১২ জন স্থানীয় ও ৮ জন বিদেশি খেলোয়াড় নিবন্ধনের প্রস্তাব দিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। এদিকে, ডাইরেক্ট সাইনিংয়ের সংখ্যাও নির্ধারণ করে দেয়ার কথা ভাবছে বোর্ড।

জালাল ইউনুস বলেন, সব কিছু এখন সুপারিশ আকারে রয়েছে। এগুলো এখন বোর্ডে উত্থাপন করা হবে। বোর্ড থেকেই ফাইনাল অনুমোদন দেয়া হবে।

গত আসরের মতো এবারও ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট এই তিন ভেন্যুতে হবে খেলা। আর এক বছরে দুই বিপিএল এড়ানোর জন্য পরের আসর ২০২০ সালের মার্চে করার কথা ভাবছে বিসিবি।

যমুনা অনলাইন: কেআর/টিএফ









Leave a reply