‌’নয়া পাকিস্তান’ বাস্তবায়নে কতটুকু সফল হবেন ইমরান খান?

|

পাকিস্তানে সরকার গঠন করছে তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই)। আগামী ১৪ আগস্ট দেশটির স্বাধীনতা দিবসের আগেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন পিটিআই প্রধান সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান, এমন তথ্য জানিয়েছেন দলটির নেতারা। তবে, নির্বাচনে ২৭০ আসনের মধ্যে দলটি জিতেছে ১১৬টি আসন। সরকার গঠন করতে প্রয়োজন ১৩৭টি আসন। তাই জোটের শরিক বানাতে তেহরিক-ই-ইনসাফ চালাচ্ছে দফায় দফায় আলোচনা। এরই মধ্যে ইমরানের প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছেন পাঞ্চাবের ৪ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে দেশটির সেনাবাহিনীর প্রভাবের কথা প্রায়ই শোনা যায়। এবারও ব্যতিক্রম হয়নি। রাজনৈতিক বিশ্লেষক, সাংবাদিক ও অন্য দলগুলোর অভিযোগ ইমরান খানের জয়ের পেছনে সেনাবাহিনী শক্তি হিসেবে কাজ করেছে। স্বাধীনতার ৭১ বছরে প্রায় অর্ধেক সময়েই দেশটি শাসন করেছে সেনাবাহিনী। আবার কখনো নির্বাচিত সরকারের ওপর ছড়ি ঘুরিয়েছেন জেনারেলরা। এর থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন না ইমরানও এমনটাই বিশ্বাস রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

উপস্থাপক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক পারভেজ জামিল মীর বলেন, ইমরান নির্যাতিতদের পক্ষে দাঁড়িয়ে উপযুক্ত বিচার নিশ্চিত করেছেন। তার ‘নয়া পাকিস্তান’ এজেন্ডার মাধ্যমে রাজনীতিতে নতুনত্ব নিয়ে এসেছে। কিন্তু, নওয়াজ বা ভূট্টোর মতো তার শিবিরে অভিজ্ঞ মানুষ নেই। দেখার বিষয়- একেবারে আনকোড়া একটি দল নিয়ে কিভাবে তিনি সরকার পরিচালনা করেন।

১৯৯৬ সালে রাজনীতিতে আসেন ইমরান খান। সরকার পরিচালনার অভিজ্ঞতা নেই তার। অক্সফোর্ডে পড়াশোনা করা এই সাবেক ক্রিকেটার পাকিস্তানের রাজনীতির দুর্নীতি ও পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে সব সময় সরব ছিলেন। ধনী-গরিবের ব্যবধানের বিরুদ্ধে নিয়মিত বক্তব্য, তরুণদের কর্মসংস্থান, মার্কিনবিরোধী অবস্থানের মধ্য দিয়ে ইমরান ধীরে ধীরে তরুণদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। গত পাঁচ বছরে ইমরান খান অনেক বেশি ঝুঁকেছেন ধর্মীয় রাজনীতির দিকে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ইমরানের জন্য ক্ষমতার সমীকরণ মসৃণ নাও হতে পারে। ইমরান এমন একটা দেশের হাল ধরতে যাচ্ছেন যেখানে অর্থনীতি অনেকটাই নড়বড়ে। এছাড়া অনভিজ্ঞতা, বাণিজ্য ঘাটতি, ঝুলন্ত পার্লামেন্ট, সেনাবাহিনীর চাপ ইমরানের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।

সাংবাদিক ও কলাম লেখক নাভিদ আহমেদ বলেন, নতুন সরকারের সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ। এক হলো- তাদের মতাদর্শিক ভিন্নতা। পিটিআই’র বেশিরভাগ নেতাকর্মী মূলধারার দলগুলো থেকে আসা। তাদের সাথে কট্টর নেতাদের চিন্তাভাবনা আলাদা। এরসাথে, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা, সামরিক প্রভাব রয়েছে। সবশেষ বলবো- ইমরান নিজেই রাজনীতিতে নতুন। তার সরকার পরিচালনা করার অভিজ্ঞতা নেই।

এদিকে জয় পাওয়ার পর ইমরান খান পাকিস্তানকে ঢেলে সাজানোর নিজের পরিকল্পনার কথা পুন:ব্যক্ত করেন। এখন দেখার বিষয়, শত বাধা উপেক্ষা করে ইমরান তার নয়া পাকিস্তান বাস্তবায়নে কতটুকু সফল হন।

যমুনা অনলাইন: এফএম









Leave a reply