খালি হয়ে গেছে বালি দ্বীপ

|

অগ্নুৎপাতের আশংকায় ফাঁকা হয়ে গেছে ইন্দোনেশিয়ার পর্যটন দ্বীপ বালি। বালির পূর্বাঞ্চলে অবস্থান আগ্নেয়গিরি মাউন্ট আগাং এর। প্রায় ৫০ বছর পর জেগে উঠছে আগ্নেয়গিরিটি। এনিয়ে সতর্ক সরকার। যেকোন সময় অগ্নুৎপাতের শঙ্কায় ১ লাখ ৩৪ হাজার বেশি মানুষকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে। মাউন্ট আগাংয়ের থেকে ১২ কিলোমিটার দূরে এসব মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রের মেঝেতে শুয়ে বসে কিছু একটা ঘটার অপেক্ষায় রয়েছে।

বালিতে অবস্থিত বিখ্যাত ট্যুরিস্ট জোনগুলোতেও সতর্কতা জানায় সরকার। ইন্দোনেশিয়ায় ভ্রমণের প্রতি সতর্কতা জারি করেছে অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ ৷ ১৯৬৫ সালে মাউন্ট আগাংয়ের অগ্নুৎপাতের সময় এরকম সরিয়ে নেওয়ার তেমন কোনো পরিকল্পনা ছিলো না। সেসময় ১ হাজার সাতশ জন মারা যায় এবং অনেক গ্রাম নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়।

জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এজেন্সির মতে, অগ্নুৎপাতের সতর্কতা হিসেবে ৪৪৭টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র বানানো হয়েছে। পার্শ্ববর্তী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এখনও বিমান ওঠানামা স্বাভাবিক রয়েছে। সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

টিবিজেড/









Leave a reply