‘কয়লার মজুদ নিয়ে সরকারকে ভুল তথ্য দিয়েছে খনি কর্তৃপক্ষ’

|

বড়পুকুরিয়ায় কয়লার মজুদ নিয়ে সরকারকে ভুল তথ্য দিয়েছে খনি কর্তৃপক্ষ। ভুল তথ্যের ফলে আজকের সংকট বলে মনে করছেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সচিব। এই ঘটনার দায় খনি কর্তৃপক্ষের এড়ানোর সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেন তারা।

শুক্রবার সকালে বড়পুকুড়িয়া কয়লা খনি পরিদর্শনে গিয়ে যমুনা নিউজকে তারা এসব কথা বলেন।

এসময় জ্বালানি সচিব আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ১৮ এপ্রিলের পরও বাইরে কয়লা বিক্রির প্রমাণ পেয়েছে পেট্রোবাংলা। ২০০৫ সালের পর থেকেই কায়লার উৎপাদন ও বিক্রি নিয়ে হিসাবে গড়মিল বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। এমনকি অডিট রিপোর্টেও কেন এসব তথ্য আসেনি তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন জ্বালানি সচিব।

বিদ্যুৎ সচিব ডক্টর আহমেদ কায়কাউস জানান, সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালুর আশ্বাস পাওয়া গেছে। তবে, তখনও কয়লা পাওয়া না গেলে বিকল্প উপায়ে চালুর চেষ্টা করা হবে।

এসময় পিডিবি চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ ও পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান আবুল মনসুর মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।









Leave a reply