ফুটবল খেলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে ১০ পুলিশসহ আহত অর্ধশত

|

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দু’দল গ্রামবাসীর সাড়ে তিন ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে ১০ পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত শতাধিক লোক আহত হয়েছে। বুধবার বিকাল ৪টায় উপজেলার চরচারতলা গ্রামের ঈদগা মাঠ এলাকায় এই সংঘর্ষের শুরু হয়। পরে সংঘর্ষ গ্রামের বিভিন্ন পাড়ায় ছড়িয়ে পড়ে। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে গুরতর আহত ১০জনকে জেলাসদর হাসপাতালসহ ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে থানার ৩ দারোগাসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকালে উপজেলার চরচারতলার গ্রামের ঈদগাহ মাঠ এলাকায় ফুটবল খেলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের ওয়াহেদ ব্যাপারীর বাড়ির সাধন মিয়ার সাথে কেচকি বাড়ির সাদ্দাম মিয়ার প্রথমে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওয়াহেদ ব্যাপারী বাড়ী ও কেচকি বাড়ির লোকজন দেশিয় অস্ত্রে নিয়ে সংঘর্ষে নেমে পড়ে। পরে ওয়াহেদ ব্যাপারীর বাড়ির পক্ষে মুন্সি বাড়ী, লতিবাড়ী এবং কেচকি বাড়ির পক্ষে বিলাই বাড়ি, আনু সর্দার বাড়ী,খা ও খন্দকার বাড়ীর  লোকজন নিয়ে সংঘর্ষে যোগ দিলে তা পুরো গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। পরে সংঘর্ষ পুলিশের নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যায়।

বিকাল ৪টা থেকে শুরু করে সন্ধা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত একটানা চলে সংঘর্ষ। এসময় ১০ পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত শতাধিক লোক আহত হয়েছে। সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে থানার এস.আই আব্দুল মান্নান, এসআই আরিফুল্লাহ, এসআই ভক্ত দত্তসহ অন্তত ১০ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও সরাইল উপজেলা থেকে দাঙ্গাপুলিশ এসে শতাধিক টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে সন্ধা সাড়ে ৭টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বদরুল আলম তালুকদার বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিকাল থেকে দু’দল গ্রামবাসী দেশিয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে নেমে পড়ে। পরে ওয়াহেদ ব্যাপারীর বাড়ি ও কেচকি বাড়ির সাথে অন্যান্য গোষ্ঠির লোকজন যোগ দিলে সংঘর্ষ পুরো গ্রাম ছড়িয়ে পরে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান আশুগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার মৌসুমী বাইন হীরা। এসময় তিনি উভয়পক্ষকে সংর্ঘষ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।









Leave a reply