টিন, সৌর বিদ্যুৎসহ উপহার সামগ্রী আসছে কাকলীর বাড়িতে

|

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর
এইচএসসিতে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার একমাত্র জিপিএ-৫ প্রাপ্ত অতি দরিদ্র পরিবারের অদম্য মেধাবী কাকলী আক্তার ও তার পরিবারের কাছে রবিবার দিনটি ছিল অনেকটাই চমকে ভরা।

এদিন স্থানীয় সংসদ সদস্য আওয়ামীলীগ সংসদীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক নূর ই আলম চৌধুরীর পক্ষ থেকে ফুলের তোড়াসহ নগদ অর্থ, টিন, সৌর বিদ্যুৎ নিয়ে কাকলীকে শুভেচ্ছা জানান প্রশাসনের কর্মকর্তা, নেতৃবৃন্দ ও স্কুল কলেজের শিক্ষকবৃন্দ।

এসময় কাকলীর পরিবারকে লেখাপড়া চালিয়ে যেতে মুঠোফোনে আশ্বাস দেন সংসদ সদস্য।মুঠোফোনে সংসদ সদস্যর সাথে কথোপকথনে ও উপহারে কাকলীর পরিবার সদস্যরা খুব খুশি প্রকাশ করেন।

অপরদিকে একইদিন জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে নগদ টাকা প্রদান করা হয়। যমুনা টিভির অনলাইনে কাকলীকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর দেশ বিদেশ থেকে অসংখ্য পাঠক কাকলীর ভবিষ্যৎ লেখাপড়া চালিয়ে যেতে তার পরিবার ও অধ্যক্ষর সাথে যোগাযোগ করছেন।

জীবনসংগ্রামে জয়ী হওয়া কাকলীকে নিয়ে যমুনা টিভির অনলাইনে সংবাদ প্রকাশের পরপরই পাঠকদের ব্যাপক সাড়া পড়ে। সংসদ সদস্য নূর ই আলম চৌধুরীর পক্ষ থেকে রবিবার দুপুরে কাকলীর বাড়িতে পাঠানো হয় ফুলের তোড়া, নগদ অর্থ, ২ বান্ডেল টিন, সৌর বিদ্যুৎসহ নানান সামগ্রী।

সংসদ সদস্যর উপহার কাকলীর পরিবারের হাতে তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আহমেদ, সহকারী কমিশনার(ভূমি) মোবাশ্বের আলম, অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হাওলাদার, জেলা পরিষদের সদস্য আয়শা সিদ্দিকা মুন্নী, প্রধান শিক্ষক সামসুল হক, আওয়ামীলীগ নেতা মিঠু ঢালী প্রমুখ।

এছাড়াও জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদ ও জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ দেয়া হয় কাকলীকে। শিবচর উপজেলা সমিতি মাসিক বৃত্তির ঘোষণা দিয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আহমেদ বলেন, কাকলী আমাদের সংসদ সদস্য মহোদয়, তার বোন,কলেজ ও উপজেলা পরিষদের বৃত্তিভোগী ছিল। ও অদম্য মেধাবী। ওর জন্য এমপি মহোদয় ফুলের তোড়া,টিন, নগদ টাকা, সৌর বিদ্যুৎ পাঠিয়েছে। ডিসি মহোদয়, র‌্যাব,জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদসহ অনেকেই ওর সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন।

আওয়ামী লীগ সংসদীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি নূর-ই আলম চৌধুরী এমপি মুঠোফোনে বলেন, মেধাবী কাকলীর পরিবারের খোঁজ খবর নিয়েছি। বিভিন্ন সহায়তা ওকে পাঠানো হয়েছে। ওর ভবিষ্যৎ লেখাপড়া নির্বিঘ্নে চলার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, চলতি বছর এইচএসসির ফলাফলে জেলার শিবচর উপজেলার ৫ টি কলেজের মধ্যে ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজ ৮৮.৫৯ ভাগ উত্তীর্ন হয়ে শীর্ষ স্থান দখল করে ও উপজেলার একমাত্র জিপিএ-৫ অর্জনধারী ওই কলেজের মেধাবী ছাত্রী কাকলী আক্তার। দফায় দফায় পদ্মা নদী ভাঙ্গন আক্রান্ত কাকলীর নিঃস্ব পরিবারটি উপজেলার পাচ্চরে টিনের একটি জরাজীর্ন ঘরে বসবাস করে। ৫ ভাই বোনের সংসারে বাবা হারুন মাদবর দিনমজুর মা তাসলিমা বেগম সংসারী। অন্যের জমিতে বাবা কামলা(দিনমজুরি) দিয়েই চলে সংসার।

ছোট সময় থেকেই লেখাপড়ায় মনোযোগী কাকলী এসএসসিতে পাচ্চর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জীবন সংগ্রাম করে জিপিএ-৫ অর্জন করে। পরে ভর্তি ফি ছাড়াই ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজ কত্তৃপক্ষ কাকলীকে পড়ার সুযোগ দেন। বেতনসহ যাবতীয় খরচ কলেজ বিনামূল্য করে দেয় । ছিল কলেজে সংসদ সদস্য ও তার বোন পরিচালিত ট্রাস্টের বৃত্তির আওতাধীন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply