‘রুশ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ক্রয়ে তুরস্কের পরিকল্পনা ন্যাটোর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ’

|

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ কিনতে তুরস্কের পরিকল্পনা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটো কর্তাদের উদ্বেগ বেড়েই চলেছে। এবার ইউরোপে দায়িত্বরত মার্কিন এক জেনারেল উদ্বেগের সাথে জানিয়েছেন, তুরস্কের এমন পরিকল্পনা ন্যাটোর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, জেনারেল টড ওল্টার্স বলেছেন, ‘এস-৪০০ এর আর যে ক্ষমতাই থাকুক না কেন, এটি এফ-৩৫ এর সক্ষমতা অন্যদের চেয়ে ভালো বুঝার সক্ষমতা এটির রয়েছে, যা জোটের (ন্যাটো) জন্য মোটেও ভালো নয়।’

জেনারেল ওল্টার্স বর্তমানে ইউরোপ ন্যাটোর এয়ার অপারেশনের কামান্ডার।

সাম্প্রতিক সময়ে এস-৪০০ কেনাকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন ও ব্রাসেলসের সঙ্গে সম্পর্কের বেশ অবনতি হয়েছে আঙ্কারার। এমনকি মার্কিন সিনেটরদের একাংশ চাচ্ছেন লকহিড মার্টিনের নির্মাণ করা এফ-৩৫ বিমান তুরস্ককে দেয়া বন্ধ করতে।

এফ-৩৫ নির্মাণ প্রকল্পের অন্যতম উদ্যোক্তা দেশ তুরস্ক। এটি বর্তমান বিশ্বের সবেচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তির যুদ্ধবিমান। রাডারকে ফাঁকি দেয়ার সক্ষমতা সম্পন্ন যুদ্ধবিমানটি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বিক্রি করা হচ্ছে। প্রতিরক্ষা শক্তিতে এটি রাশিয়ার চেয়ে ন্যাটোকে বেশ এগিয়ে রাখবে- এমনটাই মনে করেন অনেকে।

যদিও গত মাসে এফ-৩৫ এর প্রথম চালান তুরস্ক পেয়েছে, তবে প্রশিক্ষণের জন্য বিমানগুলো এখনও যুক্তরাষ্ট্রেই অবস্থান করছে। আগামী ১০ বছরে মোট ১০০টি যুদ্ধবিমান পাওয়ার কথা আঙ্কারার। এদিকে এস-৪০০ কেনার জন্যও রাশিয়ার সাথে চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। আগামী দুয়েক বছরের মধ্যে এটি হাতে পেতে পারে এরদোগান সরকার।









Leave a reply