ট্রাম্প-পুতিন বৈঠকের প্রাক্কালে ১২ রুশ গোয়েন্দা অভিযুক্ত

|

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের ইস্যুতে ১২ রুশ গোয়েন্দাকে অভিযুক্ত ঘোষণা করেছেন মার্কিন বিচার বিভাগ। শুক্রবার ফেডারেল গ্র্যান্ড জুরি শুনানি শেষে এ ঘোষণা দেন। তাদের বিরুদ্ধে নিবার্চনী প্রচারণা চলাকালে ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কমিটি এবং প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের ব্যক্তিগত ই-মেইল হ্যাক করার অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যকার বৈঠকের ঠিক আগ মুহূর্তে এলো এ ঘোষণা। ফলে আলোচনায় কিছুটা কোণঠাসা ঠাকতে পারেন পুতিন।

অবশ্য, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শুরু থেকেই বলে আসছিলেন-পুতিনের সাথে বৈঠকে গুরুত্ব পাবে নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ ইস্যু। প্রতিবেদন প্রকাশের পর, সেটি শক্ত ভীত পেল।

ট্রাম্প বলেন, প্রেসিডেন্ট পুতিনের সাথে অসাধারণ বৈঠক হবে বলে আশা করছি। ইউক্রেন, সিরিয়া অভিযান এবং মধ্যপ্রাচ্যে রাশিয়ার সামরিক অবস্থানের বিষয়ে আলোচনা হবে। গুরুত্ব পাবে পরমাণু অস্ত্রের ইস্যু। অবশ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ থাকবে শীর্ষ এজেন্ডা। আমার প্রশ্ন থাকবে, কোন স্বার্থে অন্য দেশে হ্যাকিংয়ের মতো নোংরা কার্যকলাপ চালিয়েছে রুশ গুপ্তচররা?

বিশ্লেষকরাও বলছেন, বিচার বিভাগের শুনানি বাড়তি সুযোগ দেবে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। হেলসিংকি বৈঠকে চাপে পড়বেন ভ্লাদিমির পুতিন।

জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডেভিড জাকোনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার মাঝে গোপন আঁতাত অথবা, ক্ষমতায় আসার জন্য প্রেসিডেন্ট পুতিনের সাথে ট্রাম্পের সখ্যতা- এমন অনেক গুজব থাকলেও প্রমাণ নেই। তবে, উপদেষ্টা-সহযোগী বা দোভাষী ছাড়া তাদের আলোচনা সত্যই সন্দেহের যোগান দেয়।

কার্নেগি মস্কো সেন্টারের জ্যেষ্ঠ ফেলো আলেক্সান্ডার বুনোভ ভরে ইউক্রেন সংকটের ব্যপারে কোন আগ্রহ নেই ট্রাম্পের। বড়জোর তিনি ইউরোপ-রাশিয়া দু’পক্ষের তরফ থেকে সমস্যাটি শুনবেন। কিন্তু, কোনো সমাধান দেবেন না। আর, নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ ইস্যুতে এরইমধ্যে সুবিধাজনক অবস্থানে ট্রাম্প। সুতরাং, পুতিনের সাথে মুখোমুখি বসার আগেই তিনি বিজয়ী।

স্নায়ুযুদ্ধের সময় থেকে, এ নিয়ে রুশ-মার্কিন রাষ্ট্র নেতাদের চারটি বৈঠক আয়োজনের অভিজ্ঞতা রয়েছে ফিনল্যান্ডের। রাজধানী হেলসিংকি থেকে আগে এসেছে গুরুত্বপূর্ণ নানা ঘোষণা। তাই, ট্রাম্প-পুতিন বৈঠকও পাচ্ছে বিশেষ গুরুত্ব।

যমুনা অনলাইন: এটি









Leave a reply