রাতে তৃতীয় স্থানের লড়াইয়ে ইংল্যান্ড-বেলজিয়াম

|

৩য় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে আজ সেইন্ট পিটার্সবার্গে মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড। সেমিফাইনালে হেরে শিরোপার স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ায় দুই দলেরই লক্ষ্য শেষটা ভালোভাবেই করা। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে একবার দেখা হলেও এবার পূর্ণ শক্তির দুই দলের লড়াই দেখবে ফুটবল প্রেমিরা। রাত ৮টায় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে নিজেদের সেরা একাদশ থেকে ৮ পরিবর্তন নিয়ে নেমেছিলো ইংল্যান্ড। বেলজিয়াম ছিলো আরো এক কাঠি উপরে। তাদের একাদশে পরিবর্তন ছিলো ৯টি। জাতীয় দলের আদলে বি দলের লড়াই অবশ্য তেমন উত্তাপ ছড়াতে পারেনি, আরো পরিষ্কার করে বললে উত্তাপ ছড়াতে চায় নি।

নক আউট পর্বে সহজ প্রতিপক্ষ পেয়ে ফাইনালের পথ সুগম নাকি মূল খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দিয়ে পরের পর্বের জন্য ফিট রাখাটা লক্ষ্য ছিলো তা কেবল টিম ম্যানেজম্যান্টই বলতে পারবে।

তবে তাদের সেই আশা গুড়েবালি। শিরোপার স্বপ্ন থেকে ছিটকে গিয়ে আবারো মুখোমুখি দুই দল। নিয়মরক্ষার এই ম্যাচে এখন নিজেদের মান রাখতে হয়তো আর আগের পরিকল্পনায় হাটবেন না দুই মাস্টার মাইন্ড।

বেলজিয়াম কোচ রবার্তো মার্টিনেজ বলেন, এখান থেকে অবশ্য হারানোর কিছু নেই। বেলজিয়ামের ফ্যানরা অবশ্য একটি জয় পেতে চাইবে তাদের দলের কাছ থেকে। ইংলিশদেরও একই মানসিকতা। সবাই আমাদের পাশে আছে। ভবিষ্যতের জন্য এখান থেকেই কাজ শুরু করতে হবে আমাদের।

ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট বলেন, আমরা পারফর্ম করতে মুখিয়ে আছে। আমরা অবশ্যই চাইবো বিশ্বকাপ থেকে একটি মেডেল নিয়ে ফিরতে। গ্রুপ পর্বে ওদের বিপক্ষে হারের কথাও আমাদের মাথায় আছে।

র‍্যাঙ্কিয়ে ২ আর ১২ নম্বর সাথে শেষ ম্যাচে বেলজিয়ামের কাছে হারলেও মুখোমুখি পরিসংখ্যান এখনো এগিয়ে ইংলিশরা। ৭ দেখায় বেলজিয়ামের জয় কেবল ২টি ম্যাচে ইংল্যান্ডের ৩টি। তবে সবশেষ ইংলিশরা রেড ডেভিলদের সাথে জয় পেয়েছিলো ২০১২ সালে। এবার গ্রুপ পর্বের ম্যাচের আনন্দের হারের প্রতিশোধ কিভাবে নেয় থ্রি লায়ন্সরা তাই দেখার।









Leave a reply