স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্তের পর গণসমাবেশের স্থান চূড়ান্ত হবে: মির্জা আব্বাস

|

মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বিএনপি'র স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

নয়াপল্টন না পেলে কমলাপুর স্টেডিয়ামে বিভাগীয় গণসমাবেশ করতে চায় বিএনপি। আর ডিএমপির পক্ষ থেকে এবার মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠে সমাবেশের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। আর, এ দুই প্রস্তাব নিয়ে দু’পক্ষের আলোচনার পর বিএনপি নেতৃবৃন্দ উভয় ভেন্যু দেখে সিদ্ধান্ত জানাবেন- বলে জানানো হয়েছে। এদিকে, মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠ পরিদর্শন শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, সমাবেশস্থল চূড়ান্ত হবে স্থায়ী কমিটির দেয়া সিদ্ধান্তের পর।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ডিএমপি কমিশনারের সাথে সাক্ষাৎ করতে যান বিএনপির ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দল। প্রায় দুই ঘণ্টার এ বৈঠকে উভয় ভেন্যু নিয়ে আলোচনা হয়। পরে, বিএনপি নেতা বরকতউল্লাহ বুলু সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন। পুলিশের পক্ষ থেকে ডিবি প্রধান হারুনুর রশিদ জানান, সড়ক বাদ দিয়ে বিকল্প মাঠে সমাবেশ করতে চাইলে কোনো বাধা দেয়া হবে না।

ডিবি প্রধান হারুনুর রশিদ বলেন, দুইপক্ষের সাথেই আমরা একমত পোষণ করেছি। এখন এই দুইটা ভেন্যু আমরা দেখবো, ওনারাও দেখবেন। এই দুইটার মধ্যে যেকোনো একটা ভেন্যু হয়তো সিলেক্ট হবে।

আর, বিএনপি নেতা বরকতউল্লাহ বুলু বলেন, সর্বশেষ আমরা প্রস্তাব দিলাম কমলাপুর স্টেডিয়ামে সমাবেশ করার। তারা আরেকটা প্রস্তাব করেছে মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠে। এখন এ দুটি মাঠ আমরা পরিদর্শন করে দেখবো। মাঠ যদি পছন্দ হয় তাহলে আমাদের নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত জানাবো।

এদিকে, রাতে ডিএমপিতে বৈঠক শেষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বাসায় গিয়ে বৈঠক করেন বিএনপির প্রতিনিধি দল। পরে কমলাপুর স্টেডিয়াম পরিদর্শনে যান তারা।

মিরপুর বাংলা কলেজের মাঠ পরিদর্শন শেষে কোনো সিদ্ধান্ত নেননি মির্জা আব্বাস। তিনি বলেন, স্থায়ী কমিটির সাথে আলাপ করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, কোথাও নিরাপদ নয় বিএনপি কর্মীরা। সমাবেশের প্রস্তুতি থাকলেও মারামারি করার কোনো প্রস্তুতি নেই বলেও জানান মির্জা আব্বাস।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, আমরা দুইটা মাঠই দেখেছি। এখন আমাদের স্ট্যান্ডিং কমিটি ও চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে আলাপ করবো। কোন জায়গার কী অবস্থা তা জানাবো। সিদ্ধান্ত ওনারা দেবেন, এই মুহূর্তে সিদ্ধান্ত দেয়ার কোনো অধিকার আমাদের নেই। আমাদেরকে আলাপ করতে হবে আমাদের কর্মী, স্ট্যান্ডিং কমিটি, ও স্থানীয় নেতাদের সাথে। এরপর আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত জানাবো।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply