নয়াপল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার ৪৫০

|

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে পুলিশের অবস্থান।

নয়াপল্টনে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৫০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে ১৫ জনের বিরুদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষ শুরুর আগে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়ে স্লোগান দেন। পুলিশও তখন সতর্ক অবস্থানে ছিল। এক পর্যায়ে সেখানে জলকামান ও প্রিজন ভ্যান অবস্থান নেয়। বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে পুলিশের সোয়াত টিমও পৌঁছায় সেখানে। এরপরই বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের তুমুল সংঘর্ষ বাধে।

এ ঘটনায় মকবুল নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি বিএনপির কর্মী ছিলেন এমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। মকবুলের স্বজনরা জানিয়েছেন, তিনি কারচুপির (কাপড়ে নকশা তৈরি) কাজ করতেন।

উল্লেখ্য, আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশ ঘিরে উত্তেজনা চলছে কয়েকদিন ধরেই। মূলত, গণসমাবেশের স্থান নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে সমাবেশের জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুমতি মিললেও সেখানে এই আয়োজন করতে এখন পর্যন্ত রাজি নয় বিএনপি। দলটির পক্ষ সমাবেশস্থল হিসেবে নয়াপল্টনকে চাওয়া হচ্ছিল।

এরইমধ্যে নয়পল্টনের বিকল্প হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার আরামবাগের বিষয়ে প্রস্তাব জানায় দলটি। এই টানাপড়েনের মধ্যে বুধবার নয়াপল্টনে পুলিশ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে আহত হয়েছেন অনেকে। আটক হয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply