দেড় মাসের ব্যবধানে একই মাদরাসায় দুই ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

|

সর্বশেষ নিহত শিশু মাইশা।

স্টাফ করেসপনডেন্ট, নরসিংদী:

নরসিংদীর মাধবদীতে একটি মাদরাসায় দেড় মাসের ব্যবধানে দুই ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনা ঘটেছে। মাদরাসা কর্তৃপক্ষ আত্মহত্যা বলে দাবি করলেও নিহত দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী মাইশার পরিবারের দাবি, হত্যা করা হয়েছে তাদের মেয়েকে। এ ঘটনায় বিক্ষোভ করেছেন স্থানীয়রাও।

সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটেছে উপজেলার ভগীরথপুর এলাকার জামিয়া ক্বাওমিয়া মহিলা মাদরাসায়। স্থানীয়রা বলছেন, দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়তেন মাইশা। মাদরাসার বাথরুম থেকে তার গলায় গামছা পেঁচানো মরদেহ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা বলছেন, এই শিশুর শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তাছাড়া মরদেহের দুই হাঁটু মেঝেতে লেগে ছিল বলেও জানান প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা।

এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা করেছে মাইশার পরিবার। এ নিয়ে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আল-আমিন বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট, বিশেষজ্ঞের পর্যবেক্ষণ এবং আমাদের তদন্ত সব যখন একসাথে বিবেচনা করা হবে, তখন এ মামলা সম্পর্কে একটা পরিষ্কার ধারণা আসবে।

এর আগে গত ১৯ অক্টোবর ওই একই মাদরাসার বাথরুম থেকে ফাজিল প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে। তবে এই মাদরাসায় শিক্ষার্থীদের মারধর করার অভিযোগ আছে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে। সবশেষ শিশু মাইশার মৃতদেহ উদ্ধারের পর আতঙ্কে মাদরাসার অন্য আবাসিক শিক্ষার্থীদের বাড়িতে নিয়ে গেছেন অভিভাবকরা।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply