নেত্রকোণায় বন্যহাতির আক্রমণে প্রাণ গেলো কৃষকের

|

স্টাফ করেসপনডেন্ট, নেত্রকোণা:

নেত্রকোণার বিজয়পুর সীমান্তে বন্যহাতির আক্রমণে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন। নিহত কৃষকের নাম বুনেশ রিছিল (৬০)। তিনি দুর্গাপুর উপজেলার পশ্চিম বিজয়পুর গ্রামের বাসিন্দা। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় পশ্চিম বিজয়পুর সীমান্ত দিয়ে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বাগমারা অঞ্চল থেকে বন্যহাতির একটি পাল প্রবেশ করে। সেখানে সীমান্তলাগোয়া পাকা আমন ধানের ক্ষেতে ঢুকে পড়ে হাতিগুলো। এতে ধানের ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হতে দেখে স্থানীয়রা তাড়ানোর চেষ্টা করে। এ সময় বন্যহাতির পাল স্থানীয়দের আক্রমণ করে। আক্রমণে ৬ জন আহত হন।

আহতদের বুধবার রাতে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত বুনেশ রিছিলকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের দুই কন্যা নিজ্জ সুমসাং ও নির্জলা সুমসাং বলেন, সীমান্তের ওপার থেকে প্রতিদিন দল বেধে হাতির পাল নেমে আমাদের পাকা ধান নষ্ট করে। আমরা সবাই মিলে আগুন জ্বালিয়ে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা করি। বুধবার সন্ধ্যার দিকে হাতি তাড়ানোর সময় হাতির পাল আক্রমণ করে বাবাকে গুরুতর আহত করে। পরে ময়মনসিংহ নিয়ে গেলে তিনি মারা যান।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ সিবিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নেত্রকোণার জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, নিহতের মরদেহ সৎকারে তার পরিবারকে আমরা দশ হাজার টাকা দেব। এছাড়া, হাতির পাল অবাধে প্রবেশ করে ফসল নষ্ট করা এবং জনপদে আক্রমণের বিষয়টি সমাধানে পরিকল্পনা গ্রহণ করার আশ্বাস দেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১৫ নভেম্বর জেলার কলমাকান্দা উপজেলার সীমান্তে বন্য হাতির আক্রমণে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

এএআর/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply