ব্রাজিলের নৃত্য কিনের কাছে ‘অসম্মানজনক’, তিতের ঝাঁঝালো প্রতিক্রিয়া

|

ছবি: সংগৃহীত

দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে ব্রাজিলের খেলার মাঝে সাম্বার ঢং তো ছিলই, প্রতিটি গোল উদযাপনেও নেচে নিয়েছে পুরো স্কোয়াড। রিচার্লিসনের গোলের পর তো উদযাপনের নৃত্যে যোগ দিয়েছিলেন কোচ তিতেও। তবে এই ঘটনাকে ভালোভাবে নেননি সাবেক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা রয় কিন। তার মতে, এমন উদযাপন বিপক্ষের জন্য অসম্মানজনক। তবে রয় কিনের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিতে নিজেকে এবং পুরো স্কোয়াডের জন্য ঢাল হয়ে বলেছেন, যারা উদযাপনের মধ্যে অসম্মানের কিছু দেখে, তাদের উদ্দেশ্যই অসৎ। দ্য সানের খবর।

প্রতিটি গোলের পরই সেলেসাওদের নৃত্যে দলটির সমর্থকরা খুশি হয়েছে হয়তো। তবে খুশি হওয়ার তালিকায় নিশ্চিতভাবেই নেই রয় কিন। কিছুটা রগচটা বলে পরিচিত এই রেড ডেভিল কিংবদন্তি আইটিভিতে ম্যাচের বিরতির সময়কার আলাপচারিতায় বলেন, উদযাপনে এই নৃত্য আমার ভালো লাগেনি। আমার মনে হয়েছে, এতে প্রতিপক্ষকে অসম্মান করা হয়েছে। ব্রাজিল চার গোল করেছে। প্রতিবারই গোলের পর নেচেছে। প্রথম গোলের পরই যদি কেবল এটি হতো, তবে আমি কিছুই মনে করতাম না। কিন্তু প্রতিবারই নেচেছে তারা। একবার তো ম্যানেজারও যোগ দিলেন! আমার এটা ভালো লাগেনি। এটা খুব ভালো কিছু হয়েছে, এমনটাও মনে করি না।

তবে ম্যাচের পর সেই উদযাপন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে ব্রাজিল কোচ তিতে জানান, দলের সবার সাথে বন্ধনকে জোরালো করতেই এমনটি করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমি খেলোয়াড়দের সাথে মিশে যেতে চাই। ওরা সবাই বয়সে তরুণ। নাচ, কৌতুক খুব পছন্দ করে। আর আমাকে এটা বলেছিল যে, নাচের ওই মুদ্রাটা আমাকে শিখতে হবে। প্রতিপক্ষ ছিল খুবই দারুণ। তবে আমরাও ভালো খেলতে সক্ষম হয়েছি। রিচার্লিসন যখন এলো, আমি ওকে জিজ্ঞেস করলাম, এই নাচটা কী। তুমি এটা করলে আমিও করবো।

তবে রয় কিনের অভিযোগকে নাকচ করে দিয়ে তিতে বলেছেন, কিছু মানুষ এই উদযাপনকে প্রতিপক্ষের জন্য অসম্মানজনক বলছে। যারা এর মাঝে খারাপ কিছু খুঁজে পাবে, তাদের উদ্দেশ্যই অসৎ। আমি জানি যে, সর্বত্রই ক্যামেরা থাকে। আর আমি চাই না, মানুষ আমাকে ভুল বুঝুক। আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। কারণ, কিছু মানুষ এটাকে অন্যভাবে দেখাতে চাইবে। কিন্তু সত্যি কথাটা হলো, এটা ছিল কেবলই আনন্দের বহিঃপ্রকাশ, উদযাপন। তাছাড়া, আমরা একত্রেই উদযাপন করি। কারও সেটা ভালো না লাগলে আমাদের খুব বেশি কিছু বলার নেই।

আরও পড়ুন: ইতো’র মারমুখী ভূমিকার ভিডিও ভাইরাল

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply