ইতো’র মারমুখী ভূমিকার ভিডিও ভাইরাল

|

ছবি: সংগৃহীত

কাতারের রাজধানী দোহার ৯৭৪ স্টেডিয়ামের বাইরে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন স্যামুয়েল ইতো। ব্রাজিল বনাম দক্ষিণ কোরিয়ার ম্যাচের পর ক্যামেরুনের সাবেক এই কিংবদন্তি ফুটবলার ও বর্তমানে নিজ দেশের ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট স্যামুয়েল ইতোকে মারমুখী ভূমিকায় দেখা গেছে। ভাইরাল হয়ে যাওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, হাস্যোজ্জ্বল মুখে ভক্তদের সাথে ছবি তোলার এক পর্যায়ে সেখানে উপস্থিত এক ব্যক্তির কথায় রেগে তাকে মারতে যান ইতো। খবর আল জাজিরার।

ক্যামেরুন, বার্সেলোনা ও ইন্টার মিলানের সাবেক তারকা স্ট্রাইকার স্যামুয়েল ইতো তার ভক্তদের সাথে হাসিমুখে পোজ দিচ্ছিলেন। এ সময় তার ভিডিও করছিলেন সেই ব্যক্তি। ইতোর উদ্দেশে কিছু বলেনও তিনি, যার অর্থ উদ্ধার করা যায়নি এখনও। তবে সেই কথা নিশ্চিয়ই ভালো লাগেনি ইতোর। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ক্যামেরুন ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট স্যামুয়েল ইতো উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় করছেন সেই ব্যক্তির সাথে। এক পর্যায়ে মারার জন্য সেই ব্যক্তির দিকে তেড়ে যান ইতো। কয়েকজন মিলে কোনোমতে আটকে রাখেন ইতোকে। কিন্তু সেই ব্যক্তি তার ভিডিও করা চালিয়েই যান।

ফুটেজে আরও দেখা যায়, ইতোকে যখন বেশ কয়েকজন মিলে আটকে রেখেছেন সেই ব্যক্তির দিকে তেড়ে যাওয়া প্রতিহত করতে, তখন ইতোর সঙ্গের এক ব্যক্তি এগিয়ে যান ভিডিওধারণকারীর ক্যামেরা কেড়ে নিতে। ক্যামেরা হাতছাড়া না করার জন্য মরিয়া ভিডিও ধারণকারী ব্যক্তি তখন শরীরটা গুটিয়ে নেন। এ অবস্থায় মাটিতে পড়েও যান। এ সময় ইতো নিজেকে ছাড়িয়ে নেন তাকে আটকে রাখা ব্যক্তিদের কাছ থেকে। গিয়ে সেই ব্যক্তিকে মারেন লাথি। দুই ব্যক্তি এ সময় দ্রুত গিয়ে ধরে ফেলেন ইতোকে। ইতোর লাথি পড়েছিল যার উপর, সেই ব্যক্তিকে এরপর উঠে দাঁড়াতে দেখা যায়। খুব বেশি আহত হননি তিনি, ভিডিওতে তেমনটাই দেখা গিয়েছে।

এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর মামোনি নামের আলজেরিয়ান এক ইউটিউবার দাবি করেন, তিনি ইতোর আক্রমণের শিকার হয়েছেন। প্রথম ভিডিওর কাপড়েই দ্বিতীয় ভিডিওতে উপস্থিত হতে দেখা যায় সেই ব্যক্তিকে। মোমোনি দাবি করেন, দোহার এক পুলিশ স্টেশনে গিয়েছেন তিনি অভিযোগ দায়ের করার জন্য। তিনি আরও দাবি করেন, তার ক্যামেরা ভেঙে গিয়েছে এবং, ইতো তাকে বুক, থুতনি এবং চোয়ালে আঘাত করেছেন। অভিযোগে মামোনি বলেন, গাম্বিয়ান রেফারি বাকারি পাপা গাসামাকে ঘুষ দিয়েছিলেন কিনা ইতো, সেটাই কেবল জিজ্ঞেস করেছিলেন ক্যামেরুনে ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টকে। গত বছর আফ্রিকান কাপে আলজেরিয়া বনাম ক্যামেরুনের ম্যাচে বেশ কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দেন ওই রেফারি; এমন অভিযোগ করেন মামোনি।

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply