অফিস কক্ষ খালি করে তৈরি হচ্ছে বেডরুম; কর্মীরা বলছেন, অপমানজনক

|

ছবি: সংগৃহীত।

ইলন মাস্কের একের পর এক বিতর্কিত কীর্তির জন্য এখন প্রায় ডুবতে বসেছে টুইটার। এরই মধ্যে শোনা গেছে, সান ফ্রান্সিসকোতে টুইটারের অফিসে বেশ কয়েকটি কক্ষ খালি করে সেগুলো রীতিমতো বেডরুম বানিয়ে ফেলেছেন ইলন মাস্ক। তবে কেনো তিনি অফিসের মধ্যে বেডরুম তৈরি করেছেন তা এখনো স্পষ্ট নয়। খবর এনডিটিভি।

টুইটারের গোপন এক সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য প্রকাশ করেছে ফোর্বস। ফোর্বসের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অফিসের প্রতিটি ফ্লোরেই ৪-৮টি বেডরুম তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি রুমেই আছে ছোট ছোট বেড, পর্দা, বেডসাইড টেবিল, অফিস আর্মচেয়ার ও গালিচা।

হঠাৎ কেনো অফিসের মধ্যে এই বেডরুম বানানো হচ্ছে তা নিয়ে কোনো ধারণাই নেই কর্মীদেরও। তবে প্রাথমিকভাবে টুইটার কর্মীদের ধারণা, সম্প্রতি ইলন মাস্ক কর্মঘণ্টা বাড়নোর যে ঘোষণা দিয়েছিলেন, এটি সেই পরিকল্পনারই অংশ। কর্মীরা যাতে অফিসে থেকেই দিনরাত কাজ করতে পারেন এবং রাতেও কাজের সুযোগ পান সেজন্য এই বেডরুমগুলো তৈরি করা হয়েছে।

অবশ্য কর্মীরা বলছেন, বেডরুমগুলো কেনো তৈরি করা হচ্ছে সে বিষয়ে অফিসের পক্ষ থেকে আমাদের কিছুই জানানো হয়নি। রাতে অফিসে থাকার কোনো নির্দেশনাই আসেনি। এমনকি এ বিষয়ে আমাদের সাথে কোনো আলোচনাই করা হয়নি। যদি আমরা যা ধারণা করছি সেটিই ঠিক হয়, তবে তা হবে কর্মীদের জন্য চরম অপমানজনক। কারণ আমাদের কোনো মতামত না নিয়েই অফিসে থাকার ব্যবস্থা পর্যন্ত করে ফেলা হচ্ছে।

এর কিছুদিন আগেই কর্মীদের উদ্দেশে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছিলেন ইলন মাস্ক। কর্মীদের তিনি জানিয়ে দেন, প্রতিষ্ঠানের এ দুঃসময়ে অতিরিক্ত সময় কাজ করতে হবে। আর যারা তা করতে রাজি হবে না তারা স্বেচ্ছায় ইস্তফা দিতে পারে।

এরপরই টুইটার কর্মীদের বড় একটি অংশ ইস্তফা দিয়ে দেয়। এতো কর্মী একসাথে ইস্তফা দেবে সেটি নিজেও ভাবেননি ইলন। ফলে রীতিমতো বিপাকে পড়তে হয় তাকে। এর আগে এক নোটিশেই টুইটারের প্রায় অর্ধেক কর্মীকে ছাটাই করে দেন ইলন।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply