মায়দার গোলে শেষ আটের পথে জাপান

|

ছবি: সংগৃহীত

প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার স্বপ্ন উজ্জ্বল করেছে জাপান। দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ৪৩ মিনিটের মায়দার গোলে ১-০ গোলের লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করেছে জাপান। ৪৫ মিনিটের খেলায় মদ্রিচদের চেয়ে আক্রমণে এগিয়ে ছিল হাজিমে মরিয়াসুর দল।

ম্যাচের ১০ সেকেন্ডের মাথায়ই আক্রমণে যায় জাপান। সেটা ছিল কেবলই শুরু। তবে ৭ মিনিটের মাথায়ই খেলার ধারার বিপরীতে এগিয়ে যেতে পারতো ক্রোয়াটরা। ইভান পেরিসিচের ক্রমাগত প্রেসিংয়ে গোলরক্ষক গোনদার কাছে ব্যাকপাস দিতে গিয়ে ভুল করে বসেন তোমিয়াসু। কিন্তু সময় নিয়ে যে শট নেন পেরিসিচ, তা প্রতিহত করেন গোনদা।

ম্যাচের ১২ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে জুনিয়ার বাড়ানো ক্রসে ট্যাপ ইন কওরে জাপানকে এগিয়ে নেয়ার সুযোগ মিস করেন ফরোয়ার্ড মায়দা এবং নাগাতোমো, দুজনই।

ব্রুনো পেতকোভিচের মিস ২৫ মিনিটে মাঝমাঠেরও নিচ থেকে জিভারদিওলের ডিফেন্স চেরা বুদ্ধিদীপ্ত লং বলের দখল নেন ব্রুনো পেতকোভিচ। কিন্তু গোলমুখে শট বা, অরক্ষিত অবস্থায় থাকা ক্রামারিচকে বল পাস দেয়ার কোনোটাই তিনি করতে পারেননি। এর মিনিট দুয়েক জুড়ে ছিল ক্রোয়েশিয়ার সেরা কয়েকটি আক্রমণ। তবে পেরিসিচ-ক্রামারিচ-পেতকোভিচদের টানা কয়েকটি আক্রমণ দেখেনি আলোর মুখ। ম্যাচের এই সময়টাতেই ক্রোয়েশিয়া ছন্দ খুঁজে পাওয়া শুরু করলে রক্ষণেই বেশি ব্যস্ত থাকতে দেখা যায় ব্লু সামুরাইদের।

ম্যাচের ৪১ মিনিটে গোলপোস্টের বামপ্রান্তে টাচলাইনের কাছে সুবিধাজনক জায়গায় বল পেয়েছিলেন কামাচো। কিন্তু তার শট চলে যায় বার ঘেঁষে বাইরে। তবে গোলের জন্য এরপর খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি ব্লু সামুরাইদের। দোয়ানের করা শর্ট কর্নার থেকে বল পান মোরিতো। তার শট ক্রোয়াট রক্ষণে বাধা পেয়ে আবার আসে মোরিতোর কাছে। দূরের প্রান্তে বাঁকানো ক্রস বাড়ান মোরিতো। সেখানে ইয়োশিদার বল চলে আসে গোলপোস্টের সামনে দাঁড়ানো মায়দার কাছে। সেখান থেকে ক্রোয়াট গোলরক্ষক ডমিনিক লিভাকোভচকে পরাস্ত করতে ভুল করেননি মায়দা।

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply