ইসরায়েলের দখলদারিত্ব নিয়ে নেতানিয়াহুকে যুক্তরাষ্ট্রের হুঁশিয়ারি

|

ছবি: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন

ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দখলদারিত্ব নিয়ে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। জানান, দ্বিরাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধানে বাধা তৈরি করে, তেল আবিবের এমন কোনো পদক্ষেপে স্পষ্টভাবে বিরোধিতা করবে ওয়াশিংটন। নেতানিয়াহু সরকারের সাথে আদর্শগত পার্থক্য থাকলেও বন্ধু হিসেবে ইসরায়েল রাষ্ট্রের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন বজায় থাকবে বলেও জানান ব্লিংকেন। খবর এপির।

অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেন, ১৯৬৭ সালের সীমারেখা অনুযায়ী দ্বিরাষ্ট্রভিত্তিক সমাধান সবচেয়ে ভালো পন্থা। বিষয়টিকে উপেক্ষা করে এমন যেকোনো ইস্যুতে দ্ব্যর্থহীনভাবে বিরোধিতা করবে যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্যে রয়েছে পশ্চিম তীরে অবৈধ বসতি সম্প্রসারণ, দখলদারিত্ব, পবিত্র স্থানের ঐতিহাসিক অবস্থানে বাধা, ধ্বংস, উচ্ছেদ, সহিংসতায় উস্কানির মতো বিষয়গুলো।

ইসরায়েলে ২০২১ সাল পর্যন্ত বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ১২ বছরের শাসনামলে অধিকৃত পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে নির্মাণ হয়েছে রেকর্ড সংখ্যক অবৈধ বসতি। আবারও দেশটির ক্ষমতায় ফিরছেন ডানপন্থী নেতানিয়াহু। আর এবার তার জোট সরকারে স্থান করে নিয়েছে রিলিজিয়াস জিয়নিজম, জিউশ পাওয়ার পার্টির মতো কট্টর ডানপন্থী ও দখলদারিত্বের পক্ষের দল। স্বাভাবিকভাবেই চরম আতঙ্কিত ফিলিস্তিনিরা।

এমন পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য বসতি সম্প্রসারণ নিয়ে নেতানিয়াহু সরকারের প্রতি সাবধান বানী শোনালেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। ইসরায়েলপন্থি অ্যাডভোকেসি গ্রুপ জে স্ট্রিটের সাথে আলোচনায় বলেন, দ্বিরাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানে চেষ্টা চালিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র। এই প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত হলে জোরালো বিরোধিতা জানাবে তারা।

বারবারই দ্বিরাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের কথা বললেও নেতানিয়াহু প্রশাসনের সাথে কোনো চুক্তিতে পৌঁছানো যাবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন খোদ বাইডেন প্রশাসনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা।

এটিএম/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply