টোটাল ফুটবলের কাছে হেরে ২০ বছর পর শেষ আটে ওঠা হলো না যুক্তরাষ্ট্রের

|

ছবি: সংগৃহীত

প্রথম দল হিসেবে কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে গেছে টোটাল ফুটবলের দেশ নেদারল্যান্ডস। ডেনজেল ডামফ্রাইসের দুই অ্যাসিস্ট ও এক গোলের সাথে মেমফিস ডিপাই ও ডেলি ব্লিন্ডের লক্ষ্যভেদে যুক্তরাষ্ট্রকে ৩-১ গোলে হারায় ডাচরা। টোটাল ফুটবলের কাছে হেরে তাই ২০ বছর পর শেষ আটে ওঠা হলো না যুক্তরাষ্ট্রের।

কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে শুরু থেকেই জোরেসোরেই ছুটেছে নেদারল্যান্ডস। দলের তারকা স্ট্রাইকার মেমফিস ডিপাই ও ডিফেন্ডার ডেলি ব্লিন্ডের লক্ষ্যভেদে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ২ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় লুই ভন গালের শিষ্যরা।

ছবি: সংগৃহীত

আসরের একমাত্র দক্ষিণ আমেরিকান দল যুক্তরাষ্ট্র, যারা পা রেখেছে নকআউট পর্বে। লক্ষ্য ছিল ২০ বছর পর নকআউট পর্ব পার করে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা। সেই লক্ষ্যে ডাচদের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে বেশ গোছানো ফুটবলই খেলেছে পুলিসিচ-ডেস্টরা। কিন্তু ফাইনাল থার্ডে খেলোয়াড়দের ব্যর্থতায় প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি যুক্তরাষ্ট্র।

ম্যাচের ৩য় মিনিটেই মিনিটেই ডাচদের রক্ষণে যুক্তরাষ্ট্রের হামলা। পুলিসিচের শট বাঁ-পাশে ঝাঁপিয়ে পরে দলকে বাঁচান গোলরক্ষক নোপার্ট। ম্যাচের প্রথম কয়েক মিনিট নেদারল্যান্ডসের রক্ষণেই ঘোরাঘুরি করে বল।

৯ম মিনিটে প্রথম প্রতিপক্ষের রক্ষণে ঢোকার সুযোগ পায় নেদারল্যান্ডস। আর ১০ মিনিটে দলকে মহাগুরুত্বপূর্ণ লিড এনে দেন মেমফিস ডিপাই। ডেনজল ডামফ্রাইসের ক্রস বক্সে ফাঁকায় পেয়ে যান বার্সেলোনার এই ফরোয়ার্ড। ঠান্ডা মাথায় ওয়ান টাচের প্লেসিং শটে বল জালে জড়িয়ে স্কোর লাইন ১-০ করেন তিনি। বিশ্বকাপে প্রথমে গোল খেয়ে ম্যাচ জেতার রেকর্ড নেই মার্কিনিদের। যে ২৩ ম্যাচে তারা প্রথমে গোল হজম করেছে সেখানে ৫টি ড্র হয়েছে আর হেরেছে ১৮টিতে।

গোল হজম করে তা শোধ করতে মরিয়া হয়ে আক্রমণ চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ম্যাচের ৪২ মিনিটে টিমোথি উইয়াহর জোরালো শট বাম দিকে ঝাঁপিয়ে আবারও দলকে বিপদমুক্ত করে ডাচ গোলরক্ষক নোপার্ট।

প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে আবারও বাম প্রান্ত থেকে ডি বক্সে ক্রস বাড়ান ডামফ্রাইস। এবার ডেলি ব্লিন্ডের প্লেসিং শট জড়ায় যুক্তরাষ্ট্রের জালে। দুই গোলের অগ্রগামিতা নিয়ে বিরতিতে যায় নেদারল্যান্ডস। তবে এই স্কোরলাইনে অনেকাংশেই প্রথমার্ধের প্রকৃত চেহারা প্রকাশ করতে পারছে না। গোলপোস্টে মাত্র দুইটি শট নিয়ে দুইবারই গোল পেয়েছে নেদারল্যান্ডস। বাকি খেলার অধিকাংশ জুড়েই ছিল যুক্তরাষ্ট্রের আধিপত্য।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফেরার আপ্রাণ চেষ্টা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ৭৫ মিনিটে ডাচ ডিফেন্ডারদের ভুলে ডি বক্সে বল পেয়ে যান হাজি রাইট। কিন্তু প্রথম টাচে বলের গতি বেড়ে যাওয়ায় বল চলে যায় নিয়ন্ত্রনের বাইরে। তারপর গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে পোস্টে শট নিলেও রক্ষণভাগের ফুটবলার ছিলেন ডাচ পোস্টের নিচে।

পরের মিনিটে কর্নার থেকে বল ঘুড়ে আসলে জটলায় রাইটের বুদ্ধিদীপ্ত ছোয়ায় গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল খুঁজে পায় জাল। ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচে সমতা ফেরাতে আক্রমণের ধার বাড়ায় মার্কিনিরা। অবশ্য রক্ষণ সামলে সেই ধাক্কা সামলে ওঠে নেদারল্যান্ডস। আর ৮১ মিনিটে পরিকল্পিত আক্রমণে স্কোরলাইন ৩-১ করে টোটাল ফুটবলের দেশ। ব্লিন্ডের ক্রস থেকে ডি বক্সের ডানপ্রান্তে ফাঁকায় বল পেয়ে জালে বল জড়াতে ভুল করেননি ডামফ্রাইস।

শেষ দিকে যুক্তরাষ্ট্র শুধু চেষ্টাই করে গেছে ব্যবধান কমানোর। বিপরীতে লিড ধরে রেখে প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখলো লুই ভন গালের নেদারল্যান্ডস।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply