ইউরোপে ইউক্রেন দূতাবাসগুলোতে আসছে বিস্ফোরকে মোড়া চিঠি ও বাক্সবন্দি পশুর চোখ

|

ইউরোপের বিভিন্ন দূতাবাসে হঠাৎ করেই আসতে শুরু করেছে রহস্যময় চিঠি ও বাক্স। বিষয়টি নিজেই নিশ্চিত করেছেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা। তিনি জানান, বিস্ফোরকসহ চিঠি পেয়েছে বেশ কিছু দূতাবাস। তাছাড়া চিঠি বা বক্সে করে বিভিন্ন পশুর রক্তাক্ত চোখও পাঠানো হচ্ছে। খবর সিএনএন এর।

দিমিত্রো কুলেবা বলেন, এখন পর্যন্ত ইউরোপের ১৭টি দূতাবাসে এই ধরনের চিঠি ও বাক্স আসার খবর পাওয়া গেছে। সম্প্রতি স্পেনের দূতাবাসে বোমাসহ একটি চিঠি এসেছিল। সেই থেকেই শুরু হয়েছে। এরপর কাক, শুকর বা অন্যান্য প্রাণীর চোখসহ বিভিন্ন বাক্স আসা শুরু হয়েছে। এর ফলে দূতাবাসগুলোতে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে বলেও জানান তিনি।

কুলেবো জানান, গত বুধবার (৩০ নভেম্বর) মাদ্রিদে অবস্থিত ইউক্রেন দূতাবাসে দেশটিতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতের কাছে একটি চিঠি আসে। সেই চিঠি তার কাছে পৌঁছাতে গিয়ে বিস্ফোরণের ফলে একজন কর্মী আহত হয়েছিলেন। এখানেই শেষ নয়। স্পেন কর্তৃপক্ষ বলছে, গত সপ্তাহে স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর নামেও এই ধরনের রহস্যময় চিঠি আসে। এছাড়া দেশটিতে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসও বিস্ফোরকসহ চিঠি পেয়েছে।

শুধু স্পেন নয়, হাঙ্গেরি, নেদারল্যান্ডস, পোল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া, ইতালি, অস্ট্রেলিয়া এমনকি নেপালেও ইউক্রেন দূতাবাসে এই ধরনের চিঠি ও বাক্স এসেছে বলে জানিয়েছে ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, গত শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) চেক প্রজাতন্ত্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর ব্রনোতে ইউক্রেনীয় কনস্যুলেটকে একটি প্রাণীর চোখসহ বাক্স পাঠানো হয়। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা দূতাবাসে। তাৎক্ষণিকভাবে দূতাবাসটি খালি করা হয়।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওলেহ নিকোলেনকো জানান, তার কাছেও এসেছে এই ধরনের রহস্যময় বক্স। শুক্রবার ফেসবুকে এ বিষয়ে মুখ খোলেন তিনি। বলেন, বিশেষ বৈশিষ্ট্যযুক্ত একধরনের রঙিন তরলের মধ্যে ডুবিয়ে রাখা ছিল একটি প্যাকেট। সেখান থেকে এক ধরনের গন্ধও পাওয়া যাচ্ছিল।আমরা মনে করি, ইউক্রেনকে কোনো বার্তা বা সতর্কবার্তা পাঠানোর জন্যই এসব প্যাকেট ও চিঠি পাঠানো হচ্ছে। এগুলোর দ্বারা কী বার্তা পাঠানো হচ্ছে তা বের করতে কাজ করছি আমরা।

সন্দেহজনক এসব বক্স ও চিঠি পাওয়ায় ইউক্রেনের সকল বিদেশি কূটনৈতিক প্রতিষ্ঠানে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে আনা হয়েছে। সতর্ক করা হয়েছে বিদেশে কর্মরত ইউক্রেনের কূটনীতিকদেরও।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply