স্বামীর বিরুদ্ধে মামলার কারণ জানালেন সারিকা

|

ছবি : সংগৃহীত

ছোটপর্দার জনপ্রিয় নায়িকা সারিকা সাবরিন। নাটক, বিজ্ঞাপন আর মডেলিংয়ের পরিচিত মুখ। পেশাগত জীবনে যেমন আলোচিত; তেমনি ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও তিনি খবরের শিরোনাম হয়েছেন বহুবার। সম্প্রতি স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে আবারও আলোচনায় এসেছেন।

প্রথম বিয়ে ভেঙে গেছে অনেক আগেই। তবে নতুন করে পাতা সংসারে বছর না ঘুরতেই স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তিনি। এতে ভক্ত-সমালোচকদের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, তাহলে কী দ্বিতীয় বিয়েও টিকছে না এই তারকার?

স্বামীর বিরুদ্ধে কেনো মামলা? কারণ হিসেবে গণমাধ্যমকে সারিকা বলেন, রাহী আমাকে শারীরিক, মানসিক ও আর্থিক সব দিকেই নির্যাতন করেছে। সে যেভাবে টর্চার করেছে তা সহ্য করার মতো নয়।

এই অভিনেত্রী উল্লেখ করেন, আসলে একটা মানুষ কখন থানা-আদালতের দ্বারস্থ হয়? যখন কেউ তার পাশে থাকে না। একদিকে স্বামীর নির্যাতন; অন্যদিকে পরিবার-পরিজন পাশে না পাওয়া। স্বামী সংক্রান্ত বিষয়ে পরিবার যদি আমাকে সাপোর্ট দিতো তাহলে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়াতো না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের বিয়ের সময় ২০ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করা হয়। আমার পরিবার ২৫ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার এবং আসবাবসহ সাংসারিক জিনিসপত্র দেয়। বিয়ের কয়েকদিন পরেই সে আমার কাছে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে। আমার পরিবার থেকে টাকা আনতে বলে। আমি রাজি হইনি বলে সে আমাকে অকথ্য গালাগাল করে, মারধর করে। এ জন্যই আমি মামলা করেছি।

উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে বদরুদ্দীন আহমেদ রাহীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন সারিকা। এর আগে ২০১৪ সালের ১২ আগস্ট বন্ধু মাহিম করিমকে বিয়ের করেছিলেন তিনি। বিয়ের এক বছরের মাথায় কন্যা সন্তানের মা হন তিনি। পরে ২০১৬ সালে সেই সংসারও ভেঙে যায়।

এএআর/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply