ঝিনাইদহে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে একজন নিহত, আহত ৬

|

নিহত আরিফ হোসেন।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আরিফ হোসেন (৪৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এই সংঘর্ষে আহত হয়েছেন পৌর কাউন্সিলরসহ অন্তত ৬ জন। নিহত আরিফ কাশীপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহিম লস্করের ছেলে।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে কালীগঞ্জ পৌরসভাধীন কাশীপুর বেদে পল্লীতে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কালীগঞ্জ কাশীপুর বেদে পল্লীতে দীর্ঘদিন ধরে দুইটি পক্ষের নেতৃত্ব দিয়ে আসছে মনিরুল ইসলাম ও রাসেল হোসেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই পল্লীতে জুয়া খেলা ও নারী নির্যাতনকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

আরও জানা যায়, এ সময় রাসেলের সমর্থকরা মনিরুল সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা করে ভাংচুর চালায়। সংবাদ পেয়ে রাত ৮টার দিকে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর মেহেদী হাসান সজল, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান এবং কালীগঞ্জ থানার এসআই আশিকুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেন। এ সময় উভয় গ্রুপের মধ্যে আবারও সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে কাউন্সিলর মেহেদী হাসান, ফার্নিচার ব্যবসায়ী আরিফ হোসেন, বেদে পল্লীর মালা বেগম, পার্শ্ববর্তী গ্রামের আব্দুল লতিফসহ কমপক্ষে ৬ জন আহত হন। তখন ৬টি বাড়িতে ভাংচুর চালানো হয়।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রহিম মোল্ল্যা বলেন, ঘটনা শোনার পর পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের মধ্যে আরিফ হোসেন, মালা বেগম ও আব্দুল লতিফের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে আরিফকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পথে ফরিদপুর পৌঁছালে তিনি মারা যান। অন্যরা কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মামলা এবং কাউকে আটক করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

এএআর/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply