সবজিতে ভালো ফলন, দামে হতাশ কৃষক!

|

তাজনুর ইসলাম, রংপুর:

আফসার উদ্দিন, রংপুরের মিঠাপুকুরের একজন প্রান্তিক কৃষক। সম্প্রতি সবজি চাষের ক্ষেতে তার দেখে মেলে। সেদিন ভোর থেকেই পরিবারের সবার সাথে বরবটি আর শিম ক্ষেতের পরিচর্যায় ব্যস্ত ছিলেন। গল্পে গল্পে বলছিলেন, গেলো ১০ বছরে সবজি চাষে কীভাবে বদলেছে তার ভাগ্য।

আফসার উদ্দিন জানান, ৮-১০ বছর ধরে তিনি সবজি চাষ করছেন। আগে তাদের এলাকায় খুব অভাব ছিল। এখন সবজি চাষ করে সবাই ভালোভাবে চলাফেরা করেন। যদিও চাষে ব্যয় হচ্ছে অনেক।

এ অঞ্চলের অনেকেই বাড়তি মন দিয়েছেন সবজি চাষে। শীত পুরোপুরি জেঁকে বসার আগেই বীজতলার বাড়তি যত্নে সময় দিচ্ছেন তারা।

চাষিরা বলেন, অনেক রকমের সবজি চাষ করা হচ্ছে। নার্সারি আছে, তাতে অনেক সবজি বীজ পাওয়া যায়। এখন বন্যা কম। তাই সবকিছু ঠিকমতো হচ্ছে।

প্রতিদিন ভোর থেকেই বাজারে বিক্রির জন্য নেয়া হয় মাঠের সেসব সবজি। পাইকারদের সঙ্গে চলে দর কষাকষি। তবে দাম নিয়ে হতাশার কথা শোনা গেলো অনেকের কণ্ঠে। চাষিরা বলছিলেন, সার, ওষুধের দাম বেশি। কিন্তু দাম নেই সবজির। লস হচ্ছে।

শহরের বাজারগুলোতে সবজির বাড়তি দাম আর তার বিপরীতে প্রান্তিক কৃষকদের উপযুক্ত মূল্য না পাওয়া নিয়ে হতাশার কথা বেশ পুরনো। মধ্যস্বত্বভোগীদের অতি মুনাফার প্রবণতা রোধ করতে সমবায়ভিত্তিক বাজার ব্যবস্থাপনা চান কৃষকরা।

/এমএন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply