শীতের শুরুতেই গরম কাপড়ের বাজারে আগুন, ২০ শতাংশ দর বৃদ্ধি বিদেশি কম্বলের

|

ছবি: সংগৃহীত।

শীত এলেই গরম কাপড়ের চাহিদা বাড়ে, বাড়তে থাকে দামও। তবে এবার ডলারের দাম চড়া হওয়ায় গরম কাপড়ের বাজার আরও উত্তপ্ত। বিশেষ করে বিদেশি কম্বল ও শীতকালীন বস্ত্রের দাম এখন আগুনের মতো।

শীত শুরু হতে না হতেই বিদেশি কম্বলের দর বেড়েছে অন্তত ২০ শতাংশ। ব্যবসায়ীরা বলছেন, দরকার ছাড়া শীতের পোশাক কেউ কিনছেন না এখন। তেমন চাহিদা নেই ত্রাণের কম্বলে। তাই কোটি টাকা লগ্নি করে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন রাজধানীর অনেক ব্যবসায়ী।

মূলত সিঙ্গেল, সেমি ডবল ও ডবলের হিসাবে কম্বলের আকার ঠিক হয়। দোকানীরা এসব পণ্য জাপান, কোরিয়া কিংবা স্পেনের বলে বিক্রি করলেও মোটা দাগে প্রায় সবই আসে চীন থেকে। কম্বলের থান কিনে তা কেটে বিক্রি করছেন অনেকে। এসবের দাম ওঠানামা করে ১ থেকে ২ হাজারের মধ্যে। আর প্লাস্টিকের ব্যাগে রাখা ডিজাইনের কম্বলের জন্য দিতে হবে অন্তত ৩ হাজার টাকা।

এছাড়া, ঝুট কাপড়ের কম্বলের মানভেদে দাম ওঠানামা করছে ১০০ থেকে ৬০০ টাকার মধ্যে। তুলনামূলক পাতলা এসব পণ্যের ক্রেতা মূলত নিম্নবিত্তরা। আবার ত্রাণের জন্য এই কম্বলের বাজারে আনাগোনা আছে কর্পোরেট গ্রাহকদেরও। তবে পাইকারি গ্রাহকের সংখ্যা এবার বেশ কম।

এদিকে, প্রতিদিনই বাড়ছে শীতের পোশাকের চাহিদা। ছুটির দিনে বেচাকেনা হয় সবচেয়ে বেশি। ক্রেতাদের আগ্রহ উলের সোয়েটার, স্থানীয় গার্মেন্টসে তৈরি জ্যাকেট আর ডেনিম পণ্যকে ঘিরে। এসব পণ্যের দাম ওঠানামা করছে ২০০ থেকে হাজার টাকার মধ্যে। বড়দের পাশাপাশি, শিশুদের শীতের পোশাক কিনতে হাজির হয়েছেন অনেকে। তবে দাম নিয়ে আছে বিস্তর অভিযোগ। তবে শীতের দাপট বাড়লে পোশাকের দাম আরো বাড়বে বলে জানান দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply