সচিব কমিটির বৈঠকে কোটা সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের সিদ্ধান্ত

|

কোটা সংক্রান্ত বিভিন্ন কমিটি ও সংস্থার প্রতিবেদন-নথি চেয়ে পাঠিয়েছে সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি পর্যালোচনার জন্য গঠিত সচিব কমিটি। রোববার সচিবালয়ে কমিটির প্রথম বৈঠকে কোটা বিষয়ে পত্রিকার প্রতিবেদন, পিএসসির রিপোর্ট ইত্যাদি সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি, এ বিষয়ে দেশি-বিদেশি তথ্য সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ১৫ দিনের মধ্যেই কোটা পদ্ধতি পর্যালোচনার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বৈঠকে কমিটির সদস্য, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি), অর্থ বিভাগ এবং লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (বিধি) আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন জানান, প্রথম সভায় দেশে–বিদেশে কোটা সংক্রান্ত যেসব তথ্য আছে এ বিষয়ে বিভিন্ন কমিটির প্রতিবেদন সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী সময়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলবেন কিনা জানতে চাইলে কাশেম বলেন, তারা তো বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দাবি-দাওয়া করছে। আসলে তারা অনেকেই তথ্য না জেনে আন্দোলন করছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যেহেতু চাচ্ছেন এ বিষয়ে ভালো-সুচিন্তিত সিদ্ধান্ত দেয়ার জন্য, সে জন্য শক্তিশালী কমিটি বাস্তবধর্মী এবং তথ্যগত যে বিষয় রয়েছে, সেগুলো পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত দেবে।

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে গত ১১ এপ্রিল সংসদে কোটা বাতিলের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত সোমবার রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটাপদ্ধতি পর্যালোচনা, সংস্কার বা বাতিলের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে। কমিটিতে ছয়জন সচিবকে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

যমুনা অনলাইন: টিএফ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply