ভিডিও কনফারেন্সে সমাবর্তন চান না ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের শিক্ষার্থীরা

|

মানবন্ধনে শিক্ষার্থীরা।

ডিজিটাল সমাবর্তন বয়কট ও আলাদা সমাবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি ৭ কলেজের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সকালে ঢাকা কলেজের মূল ফটকের সামনে সাত কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা জানান, আগামী ১৯ নভেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ও উপাদনকল্পে পরিচালিত ১৩৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৩তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে।

তারা বলেন, সমাবর্তন হলো একজন স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী শিক্ষার্থীর সবচেয়ে স্মরণীয় দিন। যেখানে শিক্ষার্থীকে একজন সর্বোচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা সনদ হস্তান্তরের মাধ্যমে সম্মানিত করে থাকেন। কিন্তু ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৭ কলেজের সমাবর্তন দেয়ার কারণে এসব কলেজের শিক্ষার্থীরা এ ধরনের সব আয়োজন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ঢাবি এবং অধিভুক্ত ১২৭টি প্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অতিথিদের সরাসরি উপস্থিতিতে সমাবর্তনে অংশ নেন আর ৭ কলেজের শিক্ষার্থীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজের মাঠ থেকে মূল অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, যেখানে সমাবর্তনে অংশ নেয়া মোট শিক্ষার্থীর অর্ধেকের বেশি সাত কলেজের; সেখানে এ ধরনের বৈষম্য করা নিন্দনীয়। ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের চাওয়া- এমন একটি সমাবর্তন যেখানে সরাসরি রাষ্ট্রপতি, শিক্ষামন্ত্রী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, একজন সমাবর্তন বক্তাসহ অন্যান্য অতিথি উপস্থিত থাকবেন।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা ডিজিটাল সমাবর্তন চাই না। এটি আমাদের জন্য অপমানের। আমরা চাই একসঙ্গে অথবা ৭ কলেজের জন্য আলাদা সমাবর্তন। এর প্রতিবাদ জানাতেই আমরা রাস্তায় দাঁড়িয়েছি।

এ সময় মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা দুই দফা দাবি দাবি জানান। দাবি দুটি হচ্ছে-

১. সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আলাদা সমাবর্তনের আয়োজন করা।
২. সাত কলেজের ভালো ফলাফল করা শিক্ষার্থীদের স্বর্ণপদক দেয়া।

এএআর/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply