ইসরাইলি সেনাদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে হামাস

|

ডিজিটাল যুগে প্রচলিত গুপ্তচরবৃত্তির প্রযুক্তির বাইরেও নতুন নতুন কৌশল বেছে নিতে দেখা যাচ্ছে। এর মধ্যে মোবাইলে ব্যবহৃত অ্যাপগুলোও রয়েছে। এসব অ্যাপ দিয়ে ব্যবহারকারী অবস্থানসহ পুরো তথ্য সহজেই হাতিয়ে নেয়া সম্ভব।

ইসরাইলি দখলদারিত্বের মোকাবেলায় ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসও নতুন এসব প্রযুক্তির সুবিধা নিচ্ছে।

মঙ্গলবার ইসরাইলি প্রতিরক্ষা বাহিনী জানিয়েছে, গাজা উপত্যকার হামাস ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট তৈরি করে সেখানে তারা আকর্ষণীয় তরুণীর চরিত্রে নিজেদের তুলে ধরছে। এভাবে তারা ইসরাইলি সেনাবাহিনীকে প্রলুব্ধ করছে।

ইহুদিবাদী রাষ্ট্রটির এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, গত জানুয়ারি থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সন্দেহজনক প্রোফাইল সম্পর্কে সেনারা তাদের কাছে অভিযোগ করেছেন।

ইসরাইল দাবি করেছে, হামাস কর্মীরা সুন্দরী নারীদের পরিচয়ে ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলছেন। এর পর তারা হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জারে এসে সেনাদের ভুয়া অ্যাপ ডাউনলোড করতে প্ররোচিত করছেন।

সন্দেহজনক সুন্দরী তরুণীরা ইসরাইলি সেনাদের সঙ্গে প্রেমবিনিময় করছেন, এমন খবর পাওয়ার পর দেশটির সেনাবাহিনী ব্রোকেন হার্ট নামে অভিযান চালায়। এতে দেখা যায়, গুগল প্লে স্টোরে এ রকম বহু অ্যাপ আছে। ইতিমধ্যে শতাধিক সেনা সেই অ্যাপ ডাউনলোড করেছেন।

প্রথম দুটি ভুয়া অ্যাপের নাম হচ্ছে- গ্লানসেলাভ ও উইংকচ্যাট। আর তৃতীয়টি হচ্ছে- গোল্ডেন কাপ। এসব অ্যাপে চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়েও প্রচুর তথ্য দেয়া আছে।

কেউ এসব অ্যাপ ডাউনলোড করলে হামাস যোদ্ধারা তার অবস্থান, যোগাযোগের উপায় সহজেই হাতে পেয়ে যায়। যিনি এগুলো ডাউনলোড করবেন, তার সেলফোনটিও রেকডিং ডিভাইসে পরিণত হয়ে যাবে।

সতর্কতা অবলম্বন করাই সেনাসদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়েছে ইসরাইলি সেনাবাহিনী। তবে এ নিয়ে এখন পর্যন্ত হামাসের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।









Leave a reply