৩ কারণে হারলো আর্জেন্টিনা

|

অদৃশ্য মাঝমাঠ আর রক্ষণভাগের দুর্বলতায় ম্যাচ হারতে হয়েছে আর্জেন্টিনাকে। পাশাপাশি তরুণ এমবাপ্পে-গ্রিজম্যানদের গতির কাছেও হার মেনেছেন আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগ। আর শেষ ষোলো থেকে আলবিসেলেস্তাদের বিদায় নিয়ে চলছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে তীব্র সমালোচনা। দলের এমন বিদায়ে প্রশ্ন হয়ে থাকলো আগামী কাতার বিশ্বকাপে লিওনেল মেসির ভবিষ্যত।

ফ্রান্সের কাছে ম্যাচটা কোথায় হারলো আর্জেন্টিনা। এই প্রশ্নের উত্তর খুজতে নিশ্চয়ই ফুটবল বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন নেই। অদৃশ্য মাঝমাঠ আর ভঙ্গুর রক্ষণেই হেরেছে আর্জেন্টিনা। বিশেষ করে এমবাপ্পের প্রথম গোলে এই দৃশ্য ছিলো আরো স্পষ্ট। চার আর্জেন্টাইন ঠায় দাঁড়িয়ে আছেন। আর নিজের মতো জায়গা করে দারুণ শটে গোল আদায় করলেন এই ফরাসি তারকা। ফ্রান্সের বাকি তিন গোলেও ছিলো আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডারদের ব্যর্থতায়।

এই ম্যাচে মাঝমাঠ আর রক্ষণে কোনো সমন্বয় ছিলো না আলবিসেলেস্তাদের। ফ্রান্সের প্রথম দুই গোল এসেছে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে। যেখানে বিন্দুমাত্র প্রতিরোধ ছিলো না মাঝমাঠে। আর রক্ষণ তো ভেঙ্গে পড়েছে তাসের ঘরের মতো।

৩১ বছরের গড় বয়সের আর্জেন্টাইন দল পেরে উঠেনি ফ্রান্সের তরুণ তারকাদের সাথে। ১৯ বছরের এমবাপ্পের গতির কাছে হার মেনেছেন মাশচেরানা-রোহোদের মতো বুড়ো ডিফেন্ডাররা।

মেসির আর্জেন্টিনার এমন বিদায়ে সমালোচনায় মুখর আন্তর্জাতিক মিডিয়া। আর্জেন্টাইন মিডিয়ায় এই বিদায়কে বিপর্যয় হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। আর বৃটিশ গণমাধ্যমগুলোতে দেখানো হয়েছে মেসির রাজত্বে এমবাপ্পের মতো তরুণ ফুটবল রাজার উত্থানকে।

স্প্যানিশ গণমাধ্যমগুলোতে ছিলো আর্জেন্টিনার বিদায়ের চুলছেড়া বিশ্লেষণ। আর্জেন্টিনার বিদায়ে মেসির মতো ফুটবল নক্ষত্রের পতন দেখছে তারা।

এখন প্রশ্ন সত্যিই কি বিশ্বকাপ জেতা হবে না লিওনেল মেসির? কাতার বিশ্বকাপে মেসির বয়স হবে ৩৫ বছর। সে পর্যন্ত জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ানোর অবস্থা কি মেসির থাকবে?

এমন প্রশ্নের উত্তর জানা নেই খোদ লিওনেল মেসির। এই অবসর, তো এই প্রত্যাবর্তন। সবশেষ এই আসরেই জানিয়ে দিয়েছেন বিশ্বকাপ না জেতা পর্যন্ত খেলে যাবেন আর্জেন্টিনার হয়ে। তবে সে পর্যন্ত কতটুকু ছন্দে থাকবেন মেসি, আর তার আর্জেন্টিনা যে বিশ্বকাপে যাওয়ার যোগ্যতা করতে পারবে। এমন নিশ্চিয়তাও তো দিতে পারবেন মেসি।









Leave a reply