পেটে ব্যথা সইতে না পেরে কিশোরীর আত্মহত্যা

|

সালথা (ফরিদপুর) সংবাদদাতা:
ফরিদপুরের সালথায় সঠিক চিকিৎসার অভাবে পেটের ব্যথা সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে রূপসি আক্তার (১৭) নামে এক কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার সকাল ১১ টায় উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের আশ্রায়ণ কেন্দ্র থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রূপসি ওই আশ্রায়ণ কেন্দ্রের বাসিন্দা আকু শেখের মেয়ে। সে দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছিল।

আশ্রায়ণে বসবাসরতরা জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টায় পেটের ব্যথা মারাত্মকভাবে বেড়ে গেলে তা সহ্য করতে না পেরে গলায় উড়না পেচিয়ে নিজ ঘরেই আঁড়ার সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করে রূপসি।

নিহতের মা নিহার বেগম বলেন, মেয়েটি দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছিল। টাকার অভাবে মেয়েটিকে আমরা চিকিৎসা করাতে পারি নাই। ঘটনার রাতে আমার স্বামী খালে মাছ ধরতে গিয়েছিল আর আমি আমার স্বামীকে খাবার দিতে গিয়েছিলাম। ঘরে ফিরে এসে মেয়েকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে উড়না কেটে নামিয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে নগরকান্দা স্বাস্থ্য কমপেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে আজ সকালে সালথা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতের লাশ উদ্ধার করে এনে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।









Leave a reply