রোহিঙ্গা গণহত্যা: মূল ভূমিকায় মিয়ানমারের ১৩ সেনা কর্মকর্তা

|

মিয়ানমারের সেনাপ্রধানসহ ১৩ সামরিক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মানবতার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সেনাবাহিনী হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ করে অ্যামনেস্টি।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরিচালক তিরানা হাসান বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর ধর্ষণ এবং হত্যার মতো বর্বরতা চালানোর পাশাপাশি সৃষ্টি করা হয়েছে খাদ্য সংকট। এছাড়াও ল্যান্ড মাইন ব্যবহার করে তাদের হত্যা করা হয়েছে। গ্রামের পর গ্রাম পুড়িয়ে দিয়ে ঘরহারা করা হয়েছে রোহিঙ্গাদের। সামরিক বাহিনীর মাধ্যমে পরিকল্পিত ভাবে এসব না করা হলে, নির্যাতনের মাত্রা এতটা ব্যাপক হতো না। তাই বিষয়টি মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ এবং এটি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে তোলা উচিত।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিধান অনুযায়ী মানবতাবিরোধী অপরাধের ১১টির মধ্যে নয়টির আলামত পাওয়া গেছে বলেও দাবি করে সংগঠনটি। এব্যাপারে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সামনে নেইপিদোর জবাবদিহিতারও দাবি জানিয়েছে অ্যামনেস্টি।

এদিকে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের ব্যাপারে আলাদা করে তদন্ত চালিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে উঠে আসে ৩৩ ও ৯৯ তম লাইট ইনফ্যান্ট্রি ডিভিশনের নেতৃত্বে রাখাইনে নিধনযজ্ঞ চালায় সেনাবাহিনী।









Leave a reply