গাজীপুরে ভোটগ্রহণ শেষ

|

গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিকাল চারটায় শেষ হয় ভোট। সারাদিনে বড় ধরনের অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তবে পোলিং এজেন্টদের মারধর ও কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী। সুষ্ঠু ভোট হলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তিনি। অন্যদিকে যে কেনো ফলাফল মেনে নিতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী।

ঘড়ির কাটা তখন আটটা ছুঁই ছুঁই। বৃষ্টি মাথায় নিয়েই কেন্দ্রে হাজির ভোটাররা। পুরুষরা তো আছেনই, নারী ভোটারের সংখ্যাও ছিল চোখে পড়ার মতো।

ভোট উৎসবে সামিল হতে পেরে খুশি নবীন-প্রবীণ সব ভোটার। তাদের মতে, সুষ্ঠু ভোট অনুষ্ঠানের বিষয়ে যে শঙ্কা ছিল, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সতর্ক অবস্থানের কারণে বেলা গড়ানোর সাথে সাথে তা কেটে যায়।

সকাল সোয়া ৮টার দিকে টঙ্গী বছিরউদ্দিন উদয়ন একাডেমি কেন্দ্রে ভোট দেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। সুষ্ঠু ভোট হলে তার জয় সুনিশ্চিত বলে দাবি করেন। দুপুরে এক ব্রিফিং-এ শতাধিক কেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্ট বের করে দেয়ার অভিযোগ করেন।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম সকাল ৯টার পর কানাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট তদেন। জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী নৌকার প্রার্থী সবাইকে যে কোনো ফল মেনে নেয়ার আহ্বান জানান।

৪২৫ কেন্দ্রের মধ্যে ৬টি কেন্দ্রে ভোট নেয়া হচ্ছে ইভিএমে। প্রযুক্তি ব্যবহারে সীমাবদ্ধতার কারণে শুরুতে ভোটগ্রহণে কিছুটা ধীরগতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন নির্বাচন নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রায় ১২ হাজার সদস্য কাজ করছেন। করপোরেশন এলাকায় আজ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়।









Leave a reply