গাজীপুরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আতঙ্ক তৈরি করছে

|

গাজীপুরে জনগণের মধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আতঙ্ক তৈরি করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ। মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। এসময়, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপির বিজয় নিশ্চিত বলে দাবি করেন রিজভী আহমেদ।

রিজভী বলেন, গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পুলিশ ও ডিবির সহযোগিতায় ছাত্রলীগ নৌকা মার্কায় সিল মারছে। এ ছাড়া বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার, কেন্দ্র দখল ও ধানের শীষ প্রতীকের এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

এসব অনিয়ম নিয়ে ধানের শীষের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মো. সোহরাব উদ্দিন রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন বলেও জানান তিনি।

বিএনপির এ নেতার অভিযোগ, পুলিশ ও ডিবির সহযোগিতায় ছাত্রলীগ নৌকা মার্কায় সিল মারছে। কাশিমপুর ইউনিয়নের মাধবপুর কেন্দ্রে সরকারদলীয় মেয়র প্রার্থীর ব্যালটে সিল মারার জন্য ভোটারদের নির্দেশ দিচ্ছে পুলিশ।

কেন্দ্রে যাওয়ার পথে ডিবি পুলিশ ধানের শীষের এজেন্ট ও কেন্দ্র কমিটির সদস্যদের গণহারে গ্রেফতার করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, সকাল ৬টা থেকেই শুরু হয় পুলিশের এই গণগ্রেফতার। শ্রমিক দলের জেলা দফতর সম্পাদক বজলুর রহমান বাদল, বালু চাকুলী ভোটকেন্দ্রের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মো. ফজলুকে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

এছাড়া ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড আঞ্জুমান হেদায়েতুল উম্মত কেন্দ্রের এজেন্ট হাবিবুর রহমান, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড টিডিএইচ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রের এজেন্ট ফারুক, ৩১নং ওয়ার্ড ধীরাশ্রম জিকে আদর্শ উচ্চ বিদ্যলয়কেন্দ্রের এজেন্ট সেলিম রেজা, বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট মানিক, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড সাহারা খাতুন কিন্ডারগার্টেন কেন্দ্রের এজেন্ট মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, ৫৫ নম্বর ওয়ার্ড শ্রমকল্যাণ কেন্দ্র থেকে সাবেক কমিশনার শরিফ মিয়া, ৩৪নং ওয়ার্ড শরিফপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্র থেকে মনির হোসেন মোতাহার, ৩৬নং ওয়ার্ডের গাছা উচ্চ বিদ্যালয়কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের এজেন্ট গাজীউল হক ও মামুনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছেন বলে রিজভীর অভিযোগ।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply