ড্র করেও দ্বিতীয় রাউন্ডে স্পেন-পর্তুগাল

|

নিজ নিজ ম্যাচ না জিতেও বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছে স্পেন ও পর্তুগাল। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পেনাল্টি মিসের কারণে ইরানের সাথে ১-১ গোলে ড্র করেছে পর্তুগাল। আর দু’বার পিছিয়ে পড়েও কোনরকমে ২-২ গোলে মরক্কোর সাথে ড্র করেছে স্পেন। দ্বিতীয় রাউন্ডে স্পেন খেলবে রাশিয়ার সাথে, আর পর্তুগালের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে।

সারান্সকের মরদোভিয়া এরেনায়, ইরানিদের রক্ষণভাগের কঠিন প্রত্যয় আর পর্তুগীজদের মেজাজ হারানোর ম্যাচে ভিএআর বা ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারির দৌরাত্ম্য দেখেছে। দুটি পেনাল্টি এসেছে ভিএআরে। তবে তারো আগে প্রথম আধা ঘন্টায় দু’বার বড় ভুল করেও বেঁচে যান ইরানি গোলরক্ষক আলূরেজা বেইরানভান্দ।

কিন্তু ঠিকই বিরতির আগে চোখ-জুড়ানো এক গোলে পরতুগিজদের এগিয়ে নেন কোরেসমা। মাটি কামড়ানো শটটি তিনি নেন বুটের বাইরের অংশ দিয়ে। ব্যবধান দ্বিগুন হতে পারতো রোনালদো পেনাল্টি মিস না করলে। ঠিক সময় মত লাইন থেকে বেরিয়ে দারুণ ব্লক করেন বেইরানভন্দ।

এরপরই জেগে ওটে ইরানি দর্শকরা। ভুভুজেলা বাজিয়ে জাগিয়ে তোলে স্টেডিয়াম। কিন্তু কাজের কাজ হচ্ছিল না। অন্তিম সময়ে লঘু পাপে গুরুদণ্ড পায় পরতুগাল। আনসারিফাদ সমতায় ফেরান ইরানকে। জয়ও পেতে পারতো, যদি না মেহেদী তারেমীর শট শেষ বেলায় সাইড নেটে জড়াতো।

কালিনিনগ্রাদে অবশ্য আরো বেকায়দায় ছিল ২০১০ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেন। ম্যাচের ১৪ মিনিটে রামোস-ইনিয়েস্তার ভুলের সু্যোগ নেন মমরক্কোর খালিদ বাওতাইব। এগিয়ে যায় দারুণ গতিময় ফুটবল খেলা মরক্কো।

বিদায় নিশ্চিত জেনেই হয়তো স্প্যানিশদের ওপর ছড়ি ঘোরাতে শুরু করে আফ্রিকান দেশটি। ৫ মিনিটের মধ্যে অবশ্য ভুল শুধরে নেন ইনিয়েস্তা, গোল করান ইসকোকে দিয়ে।

কিন্তু ৮১ মিনিটে মালাগা ফরোওয়ারড ইউসুফ এন-নেসেইরি গোল করে অবিশ্বাস্য এক জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন মরোক্কানদের। এ যেন টুর্নামেন্ট এ অসাধারণ খেলার পুরস্কার।

শেষমেষ আফ্রিকান এই দেশটিরও কপাল পোড়ে ভিএআর এর চক্করে। ইয়াগো আস্পাসের এই গোল, হারের হাত থেকে বাচায় স্প্যানিশদের।











Leave a reply