আর কত বেঞ্চ গরম করবেন রোনালদো? যা বললেন কোচ

|

ছবি: সংগৃহীত

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে স্বাভাবিকভাবেই ভালো সময় কাটছে না ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। ম্যানচেস্টার ডার্বির হাই ভোল্টেজ ম্যাচেও পর্তুগিজ তারকা কেবল সাইড বেঞ্চই গরম করেছেন। ইউনাইটেডে এমন ভূমিকায় যে হতাশ সিআরসেভেন, সেটা স্বীকারও করেছেন রেড ডেভিল কোচ এরিক টেন হ্যাগ। এভাবে আর কতদিন চলবে, সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে কোচ বলেছেন, অনুশীলনে দারুণ উজ্জীবিত রোনালদো।

ইউরোপা লিগের আগে ম্যানইউর অনুশীলনে সতীর্থদের সাথে কৌতুক করতে দেখা যায় রোনালদোকে। তবে ভুলে গেলে চলবে না, সাইড বেঞ্চে বসে থাকার ভূমিকায় এর আগে কখনোই ছিলেন না এই মহাতারকা। কোচের গুডবুকেও নেই ৩৭ বছর বয়সী রোনালদো। ম্যাচ টাইম পাচ্ছেন না বললেই চলে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বেঞ্চে বসে সতীর্থদের লড়াই দেখছেন গত মৌসুমেই রেড ডেভিলদের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করা রোনালদো। তবে, এখনও ভালো মেজাজেই আছেন এই সুপারস্টার, এমনটিই দাবি টেন হ্যাগের। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, খেলার সময় না পাওয়ায় সে কিছুটা হতাশ। তবে দারুণভাবে অনুশীলন করে চলেছেন রোনালদো। আমার মনে হয় না, সে অসুখী। সে ভালো আছে, আর সবার মতো ভালোভাবে অনুশীলন করছে।

ম্যানসিটির সাথে ৬ গোল খেয়ে উড়ে যাওয়া ম্যাচেও রোনালদোকে মাঠে নামাননি রেড ডেভিল কোচ। এরিক টেন হ্যাগের এমন সিদ্ধান্তে কিছুদিন আগেই বেজায় চটেছিলেন ইউনাইটেড লেজেন্ড রয় কিন। বলেছিলেন, ম্যানইউ রোনালদোকে অপমান করছে। ট্রান্সফার উইন্ডো শেষ হওয়ার আগে তাকে চলে যেতে দেয়াই উচিত ছিল। আপনি রোনালদোকে এভাবে বসিয়ে রাখতে পারেন না! মৌসুম যতোই এগোচ্ছে, পরিস্থিতি ততোই কুৎসিত হচ্ছে। আমার মতে, রোনালদোর প্রতি ক্লাবটি অসম্মান ছাড়া কিছুই দেখাচ্ছে না।

এমন সমালোচনা সম্পর্কেও বলতে হয়েছে এরিক টেন হ্যাগকে। তিনি অসম্মানের বিষয়টি উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, আমি সবাইকে সমানভাবেই সম্মান করি। তবে ভিন্ন ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে আসা খেলোয়াড়দের চারিত্রিক গড়নও ভিন্ন। সবার কাছ থেকে সর্বোচ্চ পারফরমেন্স আদায় করতে খেলোয়াড়দের সাথে সেইভাবেই আচরণ করি। তবে সকলের জন্য প্রযোজ্য একটি সাধারণ মানদণ্ড আছে।

আরও পড়ুন: ‘রোনালদোকে অপমান করা হচ্ছে’, ম্যানইউকে ধুয়ে দিলেন রয় কিন

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply