হাত-পা বিকল, তবু মন গললো না পাষণ্ডদের

|

প্রতিবন্ধী এক কিশোরী। হাত-পা দুই-ই বিকল। জন্ম থেকেই কারো সহায়তা ছাড়া চলতে পারে না। সেই কিশোরীই কিনা দিনের পর দিন বোন জামাই ও বৃদ্ধ প্রতিবেশীর পাষণ্ডতার শিকার হলো! বগুড়া শহরের বৃন্দাবন পাড়ায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগীর মায়ের অভিযোগ, কিশোরীর বড় বোনের স্বামী এবং এক প্রতিবেশী বিভিন্ন সময় তাকে ধর্ষণ করেছে। এতে করে প্রতিবন্ধী মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে বগুড়া সদর থানায় অভিযোগ করেছেন অসহায় মা।

সদর থানা পুলিশ ও মেয়েটির স্বজনরা জানান, জন্ম থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধী মেয়েটি কারো সহায়তা ছাড়া চলাফেরা করতে পারে না। তার দুটি হাত ও দুটি পা-ই বিকল। মেয়েটির বাবার বাড়িতেই দীর্ঘদিন ধরে তার বড় বোন স্বামী-সন্তানসহ থাকতেন। মা’সহ বাড়ির সব নারী সদস্যরা বিড়ি কারখানায় কাজ করেন, এই সুযোগে তার বোন জামাই পারভেজ ও প্রতিবেশী ষাটোর্ধ্ব হযরত আলী দীর্ঘদিন ধরে তাকে ধর্ষণ করে আসছিল। সম্প্রতি মেয়েটির বিভিন্ন শারীরিক জটিলতা দেখা দিলে পরিবারের সদস্য চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

চিকিৎসকরা জানান, মেয়েটি ২৫ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। এরপর রোববার রাতে মেয়েটির মা বাদী হয়ে পারভেজ ও হযরত আলীকে আসামি করে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

যমুনা অনলাইন: এমএস/টিএফ









Leave a reply