চিকিৎসা শাস্ত্রে নোবেল পেলেন সুইডিশ সভান্তে প্যাবো

|

ছবি: সংগৃহীত

চিকিৎসা শাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার-২০২২ পেলেন সুইডিশ বিজ্ঞানী সভান্তে প্যাবো। মানবজাতির বিবর্তনের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য আবিষ্কারের জন্য এ বছর চিকিৎসা শাস্ত্রে মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কার জিতলেন তিনি।

নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তিতে স্টকহোমের ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত নোবেল অ্যাসেম্বলিতে বিজ্ঞানী সভান্তে প্যাবো পাবেন ১০ মিলিয়ন ক্রোনা (৯ লাখ মার্কিন ডলার)।

সভান্তে প্যাবো। ছবি: সংগৃহীত

নোবেল কমিটি জানিয়েছে, বিলুপ্ত হোমিনিন এবং মানব বিবর্তনের জিনোম সম্পর্কিত তার আবিষ্কারের জন্য সভান্তে প্যাবোকে এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, আধুনিক মানুষ, বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া মানুষের প্রজাতি এবং আমাদের পূর্বপুরুষ যেমন, জেনারো হোমো, অস্ট্রালোপিথেকাস, প্যারানথ্রোপাস এবং আর্ডিপিথেকাসকে প্রাইমেট বর্গের বিলুপ্ত হোমিনিনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

সুইডেনের স্টকহোমে ১৯৫৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন সভান্তে প্যাবো। এরপর মিউনিখ বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং জার্মানির লাইপজিগের ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক ইনস্টিটিউট ফর ইভোল্যুশনারি অ্যানথ্রোপলজিতে পড়াশোনা করেন।নিয়ান্ডারথাল এবং পূর্বের অজানা হোমিনিন ডেনিসোভার জিনোম সিকোয়েন্স আবিষ্কার করেন প্যাবো। তার কাজগুলো দেখিয়েছে, কীভাবে মানুষের সাথে তার কাছাকাছি প্রজাতির জ্ঞাতি ভাইদের জিনোমিক পরিবর্তন ঘটেছে ধাপে ধাপে।

নোবেল কমিটি বলেছে, বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া হোমিনিনদের সাথে বর্তমানে টিকে থাকা মানব প্রজাতির জিনগত পার্থক্য উন্মোচন করার মাধ্যমে সভান্তে প্যাবো দেখিয়েছেন, ঠিক কোন কোন কারণে মানুষ সত্যিই এক বিশেষ প্রাণী।

উল্লেখ্য, সভান্তে প্যাবোর বাবা সুইডিশ বায়োকেমিস্ট সুনে বার্গস্ট্রমও ১৯৮২ সালে চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন। বাবার পুরস্কারপ্রাপ্তির ৪০ বছর পর একই বিভাগে বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কারটি জয় করলেন প্যাবো।

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply