ভাবির লাঠির আঘাতে দেবরের মৃত্যু

|

ছবি: প্রতীকী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর:

এক নারীকে বিয়ে করার সম্মতি দেয়া না দেয়া নিয়ে বিরোধের জেরে রংপুরের পীরগাছায় ভাবির লাঠির আঘাতে মারা গেছেন রওশন আলী (২৪) নামের এক দেবর। শনিবার (১ অক্টোবর) এ ঘটনায় পুলিশ ভাই ও ভাবিকে গ্রেফতার করেছে।

প্রাথমিক তদন্তের উদ্ধৃতি দিয়ে পীরগাছা থানার ওসি মাসুদুর রহমান জানান, উপজেলার কৈকুড়ি ইউনিয়নের মিরাপাড়া গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের পুত্র রওশন আলীর সাথে তার স্ত্রীর বছর দুয়েক আগে বিচ্ছেদ হয়। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে রওশন একজন নারীকে বাড়িতে এনে ভাবিকে বলেন তাকে বিয়ে করতে চায়। এতে বাধা দেন ভাবিসহ বাড়ির অন্যান্যরা। এ নিয়ে বাড়িতে ঝগড়া শুরু হলে ওই নারী বাড়ি থেকে চলে যায়। এই অভিমানে বৃহস্পতিবার রাতে রওশন বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তড়িঘড়ি করে রওশনকে মিঠাপুকুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে শুক্রবার সেখান থেকে রওশন পালিয়ে একই ইউনিয়নের মোংলাকুটি গ্রামে তার বোনের বাড়িতে যান। শনিবার (১ অক্টোবর) সকালে রওশন বাড়িতে যান। যাওয়ার পর আবারও বিয়ের বিষয় নিয়ে ভাবির সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ভাবি আরিফা রওশনের মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ওসি জানান, এ ঘটনায় ভাবি আরিফা ও ভাই রতন মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply