আহত বন্ধুদের হাসপাতালে নিতে গিয়ে যুবক নিহত

|

রাজবাড়ী প্রতিনিধি
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলায় আহত বন্ধুদের কে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের লাঠি পেটায় প্রাণ হারিয়েছে রুমান শেখ (২০) নামে এক যুবক। শনিবার (২৩ জুন) বিকেল ৫ টার দিকে গোয়ালন্দ উপজেলার কাটাখালী বাজারে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
নিহত রুমান উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের চর আন্ধারমানিক গ্রামের মোঃ কালাম শেখের ছেলে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রুমানের বন্ধু সুমন বেপারী জানায়, বরাট ভাকলা স্কুল অ্যান্ড কলেজে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া আমার এক ভাগনিকে কাটাখালী এলাকার রাসেল নামে এক বখাটে বিরক্ত করে আসছিলো। সম্প্রতি রাসেল আমার ভাগনিকে অপহরণের হুমকি দেয়। আমি রাসেলকে ফোন করে আমার ভাগনিকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করি। এ সময় রাসেল আমাকে কাটাখালী বাজারে এসে সামনা সামনি কথা বলতে বলে। বিকেলে আমি আমার দুই বন্ধু ইমন ও আকাশকে সঙ্গে নিয়ে রাসেলের সঙ্গে কথা বলতে কাটাখালী বাজারে আসি। এ সময় রাসেলের নেতৃত্বে ৭-৮ জন যুবক আমাদের বেধরক মারপিট করে। স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে বাজারের ডাক্তার দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়।
এরপর আমি আমার বন্ধু রুমানকে ফোন করে ঘটনাস্থলে এসে আমাদের হাসপাতালে নিতে বলি। তাৎক্ষণিক রুমান মোটরসাইকেল নিয়ে কাটাখালী বাজারে আসে। এ সময় রাসেলসহ ওই যুবকরা রুমানকেও কাঠের চলা দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করে। হাসপাতালে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রুমানকে মৃত ঘোষণা করেন।
রুমানের চাচা আকরাম শেখ বলেন, আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ নুরুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে আনার আগেই রুমানের মৃত্যু ঘটেছে। তার মাথার পেছনের দিকে গুরুতর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর্জা আবুল কালাম আজাদ জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে।









Leave a reply