দিনে সর্বোচ্চ কত কাপ কফি খাওয়া উচিত?

|

কফিপ্রেমী মানুষের অভাব নেই। দৈনন্দিন কাজের চাপে একটু হালকা হতে কফির প্রতি নির্ভরশীল অনেকেই। অনেকের বাড়িতে আবার নানা ধরনের কফির সংগ্রহও থাকে। দিনে একাধিক কাপ কফি খাওয়ার অভ্যাস আছে বহু মানুষের। তবে এক দিনে কত কাপ কফি খেলে শরীরের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না এর ধারণা অনেকেরই নেই।

কফির প্রধান উপাদান হলো ক্যাফিন। তাই কফির উপকারিতা পেতে সঠিক পরিমাণে খেতে হবে। মাত্রাতিরিক্ত কফি খাওয়ার ফলে এর প্রতি আসক্তি তৈরি হতে থাকে। নির্দিষ্ট সময় পর তাই কফি না পেলে মেজাজ খারাপ হতে থাকে। মানসিক অবসাদও আসতে পারে।

এছাড়া ক্যাফিনের প্রভাব ফেলে হৃদ্‌যন্ত্রেও। এর প্রভাবে হৃদস্পন্দন বেড়ে যায়। এমনকি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে না। যারা প্রচুর পরিমাণে কফি খান, তাদের অনেকের ঘুমের সমস্যা হয়। ফলে মস্তিষ্কের কাজও ব্যাহত হয়। ঘুমের ঘাটতি অন্যান্য আরও অনেক শারীরিক সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই সুস্থ থাকতে কফি খাওয়ার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখা প্রয়োজন।

তবে এই পরিমাণটি ঠিক কতটুকু? চিকিৎসকদের মতে, একজন সুস্থ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ দিনে ৪০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত কফি খেতে পারেন। এক কাপ কফিতে প্রায় ৭০ থেকে ১৪০ মিলিগ্রাম ক্যাফিন থাকে। এক কাপ কফিতে কী পরিমাণ কফি দিচ্ছেন তার উপর নির্ভর করে দিনে ৪-৫ কাপের বেশি কফি না খাওয়াই ভালো।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply