রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৪টি খুন করেছেন, ভিডিও বার্তায় অস্ত্র হাতে যুবকের স্বীকারোক্তি

|

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৪ খুনের দায় স্বীকার করে দেয়া মোহাম্মদ হাশিম নামে এক যুবকের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। আজ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

ভিডিওটিতে একটি অত্যাধুনিক পিস্তল হাতে দেয়া বক্তব্যে যুবক নিজেকে ‘ইসলামী মাহাজ’ নামে একটি সংগঠনের সদস্য দাবী করেছেন। ইতিমধ্যে যাদেরকে খুন করেছেন রোহিঙ্গা মাঝিসহ সেই চারজনের নামও বলেছেন তিনি। হত্যার শিকার ব্যক্তিরা হলেন, হেড মাঝি আজিম উদ্দিন, সানাউল্লাহ, জাফর ও ক্যাম্প ১৭ এর ইসমাঈল।

তাদের এই কাজে সংগঠিত ও নেতৃত্ব দিয়েছেন এমন ছয়জনের নামও বলেছেন সেই যুবক। তারা হলেন, জিম্মাদার সাহাব উদ্দিন, রহমত উল্লাহ, হেড মাঝি ভুইয়া, মৌলভী রফিক, কাদের ও খাইরুল।

মোহাম্মদ হাশিম আরও জানান, তাদের সামনে আরও বড় মিশন ছিল। কিন্তু সে নিজের ভুল বুঝতে পেরেছে। তাই এই খারাপ জগৎ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চান এবং রোহিঙ্গাদের কাছে ক্ষমা চান।

যুবক নিজেকে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প ১৮, ব্লক এইচ-৫৩ এর আব্দু জব্বারের ছেলে বলে জানান। তারা পূর্বে মিয়ানমারের বুচিদং এর কোয়াইনদং পূর্ব পাড়ার বাসিন্দা ছিল।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ জানান, ভিডিওটি তাদের নজরে এসেছে। ইতিমধ্যে তার ঠিকানা যাচাই বাছাই ও তাকে আটকের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply