দশরথে সাবিনারা জিতলেও পারলো না জামালরা; নেপালের কাছে হারলো ৩-১ গোলে!

|

ছবি: সংগৃহীত

নেপালের সেই দশরথেই স্বাগতিকদের বিপক্ষে খেলতে নামে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল, যে মাঠ থেকে সাফ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ঘরে ফিরেছেন সাবিনারা। সেই মাঠেই নেপালের বিপক্ষে আজ ৩-১ গোলে হেরেছে হ্যাভিয়ের কাবরেরার শিষ্যরা।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। বাংলাদেশ বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করলেও তা কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। ম্যাচের সাত মিনিটে রহমত মিয়ার ক্রস থেকে হেমন্ত বিশ্বাসের হেড জালে জড়ানোর আগে বিপদমুক্ত করেন নেপালের এক ডিফেন্ডার। ১৬তম মিনিটে জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি-কিক ক্রস বারে লাগলে আবারও গোল বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ না পারলেও নিজেদের সুযোগটা ঠিকই কাজে লাগিয়েছে নেপাল। ১৮ মিনিটে বিমল ঘারতি মাগারের ফ্রি-কিক থেকে অঞ্জন বিস্তার হেডে বল বাংলাদেশ গোলরক্ষক জিকোকে ফাঁকি দিয়ে জড়ায় জালে।

২৬ মিনিটে সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি সাজ্জাদ হোসেন। নেপালি গোলরক্ষক একা পেয়েও বল তার হাতে তুলে দিয়েছেন বাংলাদেশি স্ট্রাইকার।

পরের মিনিটে ম্যাচে নিজেদের দ্বিতীয় গোল হজম করে বসে বাংলাদেশ। বক্সের ভেতর থেকে তেজ তামাংয়ের শট প্রথম দফায় ফিরিয়ে দেন বাংলাদেশ গোলরক্ষক জিকো। জিকোর ফিস্টে বল পান ফাঁকায় দাঁড়ানো অঞ্জন বিস্তা। অঞ্জনের শটে দ্বিতীয় দফায় আর জাল রক্ষা করতে পারেননি জিকো।

বাংলাদেশকে লজ্জায় ডুবিয়ে ৩৮ মিনিটেই হ্যাটট্রিক করেন অঞ্জন বিস্তা। এবারও গোল সেই ফ্রি-কিক থেকে। বিশাল রায়ের ৩৫ গজ দূর থেকে নেয়া স্পটকিকে বক্সের ভেতরে কেবল অঞ্জনই ছিলেন।

৫২ মিনিটে চতুর্থ গোল হজম করা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পায় বাংলাদেশ দল। বক্সের ভেতর তেজ তামাংয়ের কোনাকুনি শটে অল্পের জন্য জড়ায়নি জালে। তিন মিনিট পর ব্যবধান কমায় বাংলাদেশ। ডান প্রান্ত থেকে রাকিব হোসেনের ক্রস থেকে বল সেসাং আংডেম্বের পায়ে লাগলে ফাঁকায় বল পান সাজ্জাদ হোসেন। খোলা পোস্টে এবার ভুল করেননি সাজ্জাদ। হেডে নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক গোলে ব্যবধান কমান এই স্ট্রাইকার।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply