রাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামীর দাবি আত্মহত্যা, সহপাঠীরা বলছেন খুন

|

রাজশাহী ব্যুরো:

বিয়ের আড়াই মাস পার না হতেই পারিবারিক কলহের জেরে মারা গেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ছন্দা রায়। সোমবার বিকেলে ঢাকার মুগদা থানার মানিক নগর এলাকার ভাড়া বাসায় ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের স্বামীর দাবি, এটি আত্মহত্যা। তবে তার শিক্ষক ও সহপাঠীরা দাবি করেছেন এটি হত্যা।

এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বেলা এগারটায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে ভবনের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেছে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, গত জুলাই মাসের ৮ তারিখে দিনাজপুরের উত্তম কুমার রায়ের সাথে ছন্দার বিয়ে হয়। বিয়ের খরচের নামে উত্তমের পরিবার ৪ লাখ টাকা যৌতুক নেয়। এই নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয় তাদের মধ্যে। সম্প্রতি উত্তম ছন্দার লেখাপড়া বন্ধ করার জন্যও চাপ দিচ্ছিলেন বলেও অভিযোগ করেন তারা।

ছন্দার বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়। রাবির অর্থনীতি বিভাগের ২০১৫-১৬ সেশনের ছন্দার স্নাতকোত্তরের ফল প্রকাশের কথা আগামী সপ্তাহে। ছন্দা তার স্বামী বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-পরিচালক হিসেবে কর্মরত উত্তম কুমার রায়ের সঙ্গে মুগদায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। তার মৃত্যুর ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply