ওয়েম্বলির থ্রিলারে সমানে সমান জার্মানি-ইংল্যান্ড

|

ছবি: সংগৃহীত

দ্বিতীয়ার্ধেই ৬ গোল আর শেষ ২৩ মিনিটে ৫টি। লন্ডনের ওয়েম্বলিতে মঞ্চস্থ জার্মানি ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার এক দুর্দান্ত থ্রিলারে কেউই ছাপিয়ে যেতে পারেনি কাউকে। বরং, সহজ জয়ের দিকেই এগোতে থাকা জার্মানিকে কেবল পেছন থেকে এসে ধরেই ফেলেনি গ্যারেথ সাউথগেটের দল, ম্যাচের শেষ দিকে জমাট উত্তেজনায় স্মরণীয় জয়ের ক্ষেত্রও তৈরি করেছিল হ্যারি কেইনের দল। কিন্তু জার্মানিও ফিরে এসে বুঝিয়ে দিলো, ৯০ মিনিটের খেলায় জার্মানদের আপনি হিসেবের বাইরে কখনোই রাখতে পারবেন না।

নেশনস লিগ ‘এ’ ক্যাটাগরি গ্রুপ থ্রি’তে নিজেদের শেষ ম্যাচের প্রথমার্ধে তেমন কিছুই ছিল না বলার মতো। ২৫ মিনিটে ইংলিশ স্ট্রাইকার রাহিম স্টার্লিংয়ের শট দুর্দান্ত সেভে রুখে দেন জার্মান কিপার মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগেন।

ছবি: সংগৃহীত

দ্বিতীয়ার্ধে শুরু হয় যাবতীয় নাটকীয়তা। ডি বক্সে জার্মান মিডফিল্ডার জামাল মুসিয়ালাকে ফাউল করেন হ্যারি ম্যাগুয়ার, পেনল্টি পায় জার্মানি। সুযোগ কাজে লাগিয়ে স্পটকিক থেকে ৫২ মিনিটে জার্মানদের এগিয়ে দেন ইলকায় গুন্ডোয়ান। এরপর ৬৭ মিনিটে অনবদ্য এক গোল করেন কাই হ্যাভার্টজ। চেলসির এই তারকার বাকানো শটে ২-০’র লিড নেয় জার্মানরা।

চাকরি বাঁচানো নিয়ে হয়তো তখন শঙ্কায় ছিলেন সাউথগেট! ছবি: সংগৃহীত

এরপর ইংল্যান্ডের লড়াইয়ে ফেরা। ৭২ মিনিটে লেফট ব্যাক লুক শ গোল করে ম্যাচে ফেরান ইংলিশদের। ৭৫ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা ম্যাসন মাউন্ট দারুণ ফিনিশিংয়ে উচ্ছ্বাসে ভাসে থ্রি লায়ন্স সমর্থকরা। জার্মান ডিফেন্সের উপর দিয়ে ক্ষণকালের এক ঝড় বইয়ে দেয় ইংল্যান্ড। ৮১ মিনিটে জার্মান ডিফেন্ডার স্লাটোভিক ডি বক্সে ফাউল করেন তার বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের ইংলিশ সতীর্থ জুড বেলিংহ্যামকে। সুযোগ কাজে লাগিয়ে ৮৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন হ্যারি কেইন।

ছবি: সংগৃহীত

তবে নাটক এখানেই শেষ হলো না। ৮৭ মিনিটে কাই হ্যাভার্টজের গোলে ড্র আদায় করে নেয় জার্মানি। এই ড্রতে ৬ ম্যাচে মাত্র তিন পয়েন্ট নিয়ে জয়হীন থেকে টুর্নামেন্ট শেষ হলো ইংল্যান্ডের। সাথে, বি ক্যাটাগরিতে অবনমন তো আছেই।

আরও পড়ুন: হাঙ্গেরির স্বপ্ন ভেঙে সেমিতে ইতালি

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply