ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেয়া হয়েছে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে

|

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দিয়েছে ছাত্রলীগের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে।

এর আগে, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগ দাবি করেন একই কমিটির ২০ জন নেত্রী। হলে সিট বাণিজ্য ও সহপাঠীদের সাথে খারাপ আচরণের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা রাজিয়ার বিরুদ্ধে।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ইডেন কলেজে সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন ছাত্রলীগ নেত্রীরা। তারা বলেন, কমিটির সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসকে প্রাণনাশের চেষ্টা করেছেন ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। বিষয়টি নিয়ে কলেজ প্রশাসনের নীরবতায় নিন্দা জানান আন্দোলনকারীরা। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগকেও এই অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে আয়েশা সিদ্দিকা হলের সামনে ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসের ওপর ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা রাজিয়ার উপস্থিতিতে তাদের অনুসারীরা হামলা চালায়। এই হামলায় জড়িতরা হলেন সহ-সভাপতি নুজহাত ফারিয়া রোকসানা, আয়েশা সিদ্দিকা মিম, আর্নিকা তাবাসসুম স্বর্না, শিরিনা আক্তার, সোমা মল্লিক পপি, জিনাত হাসনাইন, লিমা ফেরদৌস আশরাফ লুবনা, বিজলি আক্তার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিতু আক্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুন্নাহার জ্যোতি, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারজানা ইয়াসমিন নীলা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, জান্নাতুল ফেরদৌসের কক্ষে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা প্রবেশ করে তার ল্যাপটপ, অর্থসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে প্রশাসনকে জানানোর পর ১২ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও জান্নাতুল ফেরদৌসের কোনো জিনিসই তাকে বুঝিয়ে দেয়া হয়নি। এছাড়াও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের একচেটিয়া রাজনৈতিক আচরণে অতিষ্ট হয়ে বাকি নেতৃবৃন্দ এর প্রতিবাদ করতে বাধ্য হচ্ছে। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং তাদের অনুসারীদের রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এছাড়া ক্যান্টিনে চাঁদাবাজি, ইন্টারনেট লাইন থেকে চাঁদাবাজি, কলেজের মুদি দোকানে চাঁদাবাজি, অবৈধভাবে শতাধিক রুম দখল করে রাখা, বিভিন্নভাবে মেয়েদের কু প্রস্তাব দেয়াসহ তাদের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাওয়া হয়। ইডেন লকেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদত্যাগ না করলে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছাত্রলীগের ২৫ জন নেত্রী পদত্যাগ করবেন বলেও জানান তারা।

ইডেন কলেজে দুই পক্ষের ছাত্রলীগ নেত্রীরা ক্যাম্পাসে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। তবে ক্যাম্পাসে পুলিশ দেখা যায়নি। শনিবার রাতে জান্নাতুল ফেরদৌস নামের এক নেত্রীকে মারধর করে হল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ ওঠে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা রাজিয়ার বিরুদ্ধে।

/এনএএস





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply