পাবনায় প্রেমের সম্পর্কের সূত্রে ২ গার্মেন্টস কর্মীকে ডেকে এনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৪

|

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার ঈশ্বরদীতে ২ গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার মুলাডুলি শেখপাড়া এলাকায় কৃষি ফার্মের রাস্তার পাশে আখক্ষেতে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

আটককৃতরা হলেন, ঈশ্বরদীর লক্ষীকোলা গ্রামের বাকী বিল্লাহ’র ছেলে আল আমিন (২৫), নাটোরের বড়াইগ্রাম থানার গোপালপুরের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে আব্দুর রশীদ (৩৫), লক্ষীকোলা গ্রামের নায়েব আলী সরদারের ছেলে মহিদুল সরদার (৩৫) ও বড়াইগ্রাম থানার রাজাপুরের চাঁন মিঞার ছেলে জাবেদ (৩৫)। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর আটককৃতদের গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার জানান, এক নারী গার্মেন্টস কর্মীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে অভিযুক্ত আল আমিনের। সম্পর্কের জের ধরে ঈশ্বরদীতে দেখা করার জন্য আসতে বলে আল আমিন। তার সঙ্গে দেখা করার জন্য ওই নারী তার বান্ধবীকে নিয়ে শনিবার বিকালে ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া যায়। আল আমিন বিভিন্ন কায়দা কৌশল খাটিয়ে বন্ধু-বান্ধবদের সহযোগিতায় ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে রাত ৮টার পর তাদের নির্জন এলাকার আখক্ষেতে নিয়ে কয়েক বন্ধু মিলে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। ধর্ষিতাদের চিৎকারে স্থানীয়রা গিয়ে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

ওসি অরবিন্দ সরকার আরও জানান, ভুক্তভোগীদের বক্তব্য শুনে রাতেই কুষ্টিয়া ও নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪ ধর্ষককে আটক করা হয়।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply