শিশুর ফোন আছড়ে ফেলার ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত রোনালদো

|

ছবি: সংগৃহীত

চলতি বছরের ৯ এপ্রিল ১৪ বছরের এক সমর্থকের মোবাইল ফোন আছড়ে মাটিতে ফেলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন তারকা ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এফএ’র বিধি ভাঙার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন এই পর্তুগিজ ফুটবলার। শাস্তি হিসেবে তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন সিআরসেভেন।

প্রিয় খেলোয়াড়কে এক নজর দেখতে চাওয়ার আকাঙ্ক্ষা থাকে ভক্ত-সমর্থকদের। তাদের প্রতি ভালোবাসা থেকেই ছবি তোলার ইচ্ছে জাগে। গুডিসন পার্কে প্রিয় ফুটবলার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে পেয়ে ছবি তুলতে যান ১৪ বছরের জেক হার্ডিং নামে এক সমর্থক। ৯ এপ্রিল এভারটনের বিপক্ষে হেরেছিল রোনালদোর দল। স্বাভাবিকভাবেই ক্ষিপ্ত হয়ে সিআরসেভেন ফিরছিলেন ড্রেসিংরুমে। ছবি তোলার জন্য মোবাইল নিয়ে রোনালদোর দিকে হাত বাড়িয়েছিলেন সমর্থক। মুহূর্তেই তা আছড়ে মাটিতে ফেলে দেন রোনালদো। আর কান্নায় ভেঙে পড়েন সেই সমর্থক ও তার মা। সেটিই ছিল ওই কিশোরের প্রথম স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখার স্মৃতি। যদিও পরে ক্ষমা চেয়েছিলেন সিআরসেভেন।

ছবি: সংগৃহীত

এমন ঘটনার জন্য গত আগস্টে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রোনালদোকে ডেকে পাঠায় মার্সিসাইড পুলিশ। সাবধানী বার্তায় দিয়ে মৌখিকভাবে সতর্ক করে দেয় তারা। অপ্রাপ্তবয়স্ক ভক্তের প্রতি রোনালদোর এমন আচরণ ভালো চোখে নেয়নি কেউই। ফলে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে এফএ। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে অশোভন ও সহিংস আচরণের কারণে রোনালদোকে দোষী সাব্যস্ত করেছে এই সংস্থা। এখন রোনালদোর মাথার উপর ঝুলছে তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কা।

এদিকে, এই বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য প্রকাশ করেননি রোনালদো। তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কর্তৃপক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই ফুটবলারের উত্তর যাই হোক না কেন, তাকে সমর্থন দিয়ে যাবে ক্লাব।

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply