রোহিঙ্গা সংকট সমাধান না হওয়ায় জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর হতাশা প্রকাশ

|

ছবি: জাতিসংঘের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল ৫টি অর্থনীতির দেশের মধ্যে বাংলাদেশ এখন অন্যতম। সবার জন্য সমান সুযোগ, সম্প্রীতি ও শান্তিপূর্ণ সমাজ এবং টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘের ৭৭তম অধিবেশনে দেয়া ভাষণে একথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলায় দেয়া ভাষণে রুশ-ইউক্রেন সংঘাত, জলবায়ু পরিবর্তনসহ বৈশ্বিক বিভিন্ন সংকট নিয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। ৫ বছরেও রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান না হওয়ায় হতাশাও প্রকাশ করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময় শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে জাতিসংঘের ৭৭তম অধিবেশনে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ করে প্রতিবারের মতো এবারও বাংলায় দেয়া তার বক্তব্যে উঠে আসে বাংলাদেশের উন্নয়ন, রোহিঙ্গা সংকট, রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধসহ বৈশ্বিক নানা ইস্যু।

প্রায় আধা ঘণ্টার ভাষণের শুরুতেই জিডিপি, টেকসই উন্নয়ন, খাদ্য নিরাপত্তা, নারীর ক্ষমতায়নের অর্জনের মতো বিভিন্ন ইস্যুতে বাংলাদেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া করোনা সংকট মোকাবেলার বিষয়টিও তুলে ধরেন অধিবেশনে।

বাংলাদেশ প্রসঙ্গের পাশাপাশি বৈশ্বিক নানা সংকট নিয়েও কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। মনে করিয়ে দেন যুদ্ধের ক্ষতিকর প্রভাবের কথা। আহ্বান জানান দ্রুত ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ বন্ধের। বলেন, সঠিক সময়ে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে না পারলে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনে ব্যর্থ হবেন নেতারা।

অধিবেশনে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মানবজাতির জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী সংকট মোকাবেলায় বিশ্ব নেতাদের একযোগে কাজ করারও আহ্বান জানান। পাশাপাশি ইসরায়েল অধিকৃত ফিলিস্তিনের জনগণের প্রতি পূর্ণ সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।

এটিএম/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply